আলুটিলায় ‘বিশেষ পর্যটন জোন’ গঠনের প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

খাগড়াছড়ির আলুটিলায় মাটিরাংগা উপজেলাধীন আলুটিলা ও তৈকাতাং মৌজায় এবং খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার গোলাবাড়ি মৌজায় ৬৯৯.৯৮ একর এলাকা জুড়ে বিশেষ পর্যটন জোন গঠনের প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে বুধবার সকালে আলুটিলা ভূমি রক্ষা কমিটিসহ, জনপ্রতিনিধি, হেডম্যান, কার্বারী, শিক্ষাবিদ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি দিয়েছে।

এলাকাবাসীর পক্ষে খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান চঞ্চুমনি চাকমা, খাগড়াছড়ি জেলা কার্বারী এসোসিয়েশনের সভাপতি রণিক ত্রিপুরা, গোলাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান জ্ঞান রঞ্জন ত্রিপুরা, পেরাছড়া ইউপি চেয়ারম্যান তপন বিকাশ ত্রিপরা, গোলাবাড়ী মৌজার হেডম্যান উক্যছেইন চৌধুরী, আলুটিলা ভূমি রক্ষা কমিটির সদস্য সচিব জয়ন্ত ত্রিপুরা ও সদস্য রিতা রোয়াজা জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান-এর নিকট উক্ত স্মারকলিপিটি প্রদান করেন।

প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে পেশ করা স্মারকলিপিতে বলা হয়,  ‘মাটিরাঙ্গা উপজেলাধীন তৈকাতাং মৌজায় প্রস্তাবিত জমিতে বর্তমানে ১২টি গ্রামে ৩৯৭টি পরিবারের মোট ১,৬৪২ জন পাহাড়ি বসবাস করছেন। এছাড়া এই গ্রামগুলোতে রয়েছে ৫টি হিন্দু মন্দির, ৩টি শ্মশান, ব্র্যাক পরিচালিত স্কুল ১টি, ইউনিসেফ পরিচালিত স্কুল ৪টি ও জাবারাং (এনজিও) পরিচালিত স্কুল ১টি।’

এছাড়াও স্মারকলিপিতে আরো বলা হয়, ‘উক্ত তিন মৌজায় প্রস্তাবিত জমিতে ৩৮ ব্যক্তি ও সমিতির নামে শত শত একরের বিভিন্ন ফলজ ও বনজ বাগান এবং ঔষধী গাছ রয়েছে। এইসব বাগান থেকে তারা বছরে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করে তাদের পরিবারে ও সমাজে সমৃদ্ধি আনয়ন করছেন। পাহাড়ি বাঙালি মিশ্রিত জমির মালিকদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রাক্তন সংসদ সদস্য যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা, তার স্ত্রী ক্রাইচাউ মারমা, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা জাহেদুল আলম, কলেজের শিক্ষক, আইনজীবী, ব্যবসায়ী, সরকারী কর্মকর্তাসহ অনেকে।,

স্মারকলিপিতে  ‘আলুটিলা বিশেষ পর্যটন জোন, খাগড়াছড়ি নামে অর্থনৈতিক অঞ্চল’ গঠনের প্রস্তাব বাতিল করা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে উক্ত প্রকল্পের পরিবর্তে বরং আলুটিলাসহ তার আশেপাশের জমির মালিকদের ফলজ, বনজ ও ঔষধী গাছের বাগান সৃজনের জন্য আর্থিক সহযোগিতা, প্রণোদনা ও রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়ার দাবি জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + seven =

আরও পড়ুন