উখিয়ার রাজাপালং ৯নং ওয়ার্ডের উপ-নির্বাচনে আলোচনায় ৩ মেম্বারপ্রার্থী

fec-image

আগামী ২০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের উপ-নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে ইতিমধ্যে দিনরাত গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছে বেশ কয়েকজন প্রার্থী। তৎমধ্যে আলোচনায় উঠে এসেছে ৩জন মেম্বারপ্রার্থীর নাম। এদের মধ্যে একজন হেলাল উদ্দিন। এলাকায় তার মরহুম পিতার একটি সুনাম এবং সৎ ন্যায় পরায়ন সমাজ সেবক হিসেবে খ্যাতি রয়েছে। পিতার অবর্তমানে হেলাল উদ্দিন নিজেই ওয়ার্ডের বিভিন্ন সমস্যা-সম্ভাবনা নিয়ে কাজ করে গেছেন এবং মানুষের সুখে-দুখে সাথে ছিলেন। এমনই জনশ্রুতি রয়েছে এলাকায়। গত কয়দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার পক্ষে বেশ সরগরম ¯ট্যাটার্স দিতে দেখা যায় ৯নং ওয়ার্ডের তরুণ ভোটারদের।

কয়েকটি ¯ট্যার্টাস হুবহু তুলে ধরা হলো:
tufayel ahammed নামের কুতুপালং এলাকার এক তরুণ ভোটার লিখেছেন-আমরা নেতা চাইনা, আমরা চাই প্রতিভাবান সম্পূর্ণ পরিচ্ছন্ন একজন সমাজ কর্মী। যিনি সমাজের জন্যই নিজেকে নিয়োজিত রাখবেন।

বিগত ৫ বছরের সামাজিক কর্মকাণ্ডে যোগ বিয়োগ মিলিয়ে দেখলে আমি কুতুপালং ৯নং ওয়ার্ডে ওনার কোন বিকল্প চিন্তা করতে পারিনা।

আমরা এমন একজন গার্ডিয়ান চাই যাকে সরকারি বরাদ্দের জন্য বসে থাকতে হবেনা সাধ্যের মধ্যে থাকলে নিজের পকেট থেকেই খরচ বহন করে কাজ করে দিবে।

আমরা এমন কোন নেতা চাইনা যিনি সরকারের পাঠানো বিভিন্ন সহযোগিতা থেকে ৫০% বিলি করে বাকি ৫০% পিছনের দরজা দিয়ে গুম করে দিবে ।

আমি যতটুকু জানি ৯ নং ওয়ার্ডের জন্য ৫ জন প্রার্থী হতে চলছে। আমাদের উচিৎ এমন একজন ব্যক্তিকে নির্বাচিত করা যার নেতৃত্ব দানের সক্ষমতা রয়েছে।

যার ভিতর লিডারশীপ গুন আছে সে ২০ বছরেও নেতৃত্ব দিতে পারে। আমরা চাই নেতৃত্ব জ্ঞান সম্পূর্ণ একজন তরুন। যিনি সমাজকে প্রাধান্য দেয়, বাকি প্রার্থীদের জন্যও ভালোবাসা।

একই ভাবে নিজের ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন আপন বড়ুয়া রনি নামে আরেক তরুণ ভোটার।

অপরদিকে রাতদিন ব্যস্ত সময় পার করছেন নুরুল হক নামের আরেক মেম্বারপ্রার্থী৷ তিনি উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক৷ দীর্ঘদিন এলাকার সমাজ সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা ও জনপ্রিয়তাও রয়েছে তার। নুরুল হক খানের নিকট্মীয়স্বজন জানিয়েছেন, যেদিকে যাচ্ছি সেদিকে এলাকার ভোটারেরা নুরুল হক খানের পক্ষে সাড়া দিচ্ছে।

উপ-নির্বাচনে মেম্বারপ্রার্থী হিসেবে আব্দুল হক নামের আরো একজন প্রার্থীর নাম শোনা গেছে। সে ওই ওয়ার্ড থেকে এক বার ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়েছিল। পরবর্তীতে মরহুম বখতিয়ার আহমদ মেম্বার নির্বাচিত হলে সে অনেকটা মাঠ থেকে ছিটকে পড়ে। তারপরেও সাবেক মেম্বার হিসেবে এলাকায় পরিচিতি রয়েছে তার।

এখন সর্বশেষ মাঠের জনপ্রিয়তা কে ধরে রাখতে পারবে অথবা মাঠের চিত্র পাল্টিয়ে দিতে সক্ষম হবে তা দেখার অপেক্ষায় পুরো ৯নং ওয়ার্ড তথা রাজাপালংবাসি।

উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি এ উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বখতিয়ার আহমদ মুত্যু বরণ করলে স্থানীয় সরকার বিভাগ উক্ত ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যের পদটি শূণ্য ঘোষণা করেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উখিয়ার, উপ-নির্বাচনে, রাজাপালং
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

11 + seven =

আরও পড়ুন