উখিয়া-টেকনাফে পিতা-পুত্রসহ ৬ মাদক কারবারি আটক

fec-image

উখিয়া-টেকনাফে পৃথক অভিযান চালিয়ে পিতা-পুত্রসহ ছয়জন মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) সদস্যরা। ধৃতদের মধ্যে দুই রোহিঙ্গা রয়েছে। এদের কাছ থেকে ১ লাখ ৩০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

জানা যায়, উখিয়ার থাইংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকা হতে ১ লাখ ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহসহ ২ রোহিঙ্গা মাদক কারবারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৫। ধৃতরা হচ্ছে থাইংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প ১৯ এর ডি ব্লকের নুর মোহাম্মদের স্ত্রী ফাতেমা খাতুন (৩৪) ও আবু সিদ্দিকের পুত্র জানে আলম (৫২)।

বুধবার (১১ আগস্ট) সকালে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া এন্ড অপারেশন্স) সিনিয়র এএসপি আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫ কতিপয় মাদক কারবারী কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার থাইংখালী ১৯নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-ব্লকের সাব ব্লক ডি-২ তে রোহিঙ্গা শরণার্থী ফাতেমা খাতুনের বসতঘরে দীর্ঘদিন যাবৎ মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট মজুদ রেখে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫ এর একটি দল মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ওই বসতঘরে পৌঁছালে র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক কারবারী পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় মাদক কারবারি ফাতেমা খাতুন (৩৪) ও জানে আলম (৫২) কে আটক করা হয়। পরে স্বাক্ষীদের সম্মুখে ধৃত আসামিদের দেখানো মতে ফাতেমা খাতুন এর বসতঘরের একপার্শে একটি প্লাস্টিকের বস্তার ভিতর হতে ১ লাখ ২০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া যায়।

ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামিরা জানায়, তারা দীর্ঘদিন ধরে টেকনাফের সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদক ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রয় করে আসছে। গ্রেফতারকৃতদের কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে ১০ আগস্ট (মঙ্গলবার) সন্ধা সাড়ে ৬টার দিকে কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ মাদকের চালান বহনের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হ্নীলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে প্রধান সড়কে অভিযান চালিয়ে পিতা-পুত্রসহ চারজনকে আটক করে।

ধৃতরা হচ্ছে ফুলের ডেইল জাদি পাড়ার মৃত ইসলাম মিয়ার পুত্র ছৈয়দ আকবর (৪০), পশ্চিম সিকদার পাড়ার মৃত আব্দুল জাব্বারের পুত্র জাফর আলম (৪৩), নাটমোরা পাড়ার মৃত কাদের হোছনের পুত্র সাইফুল ইসলাম (২২) এবং পশ্চিম সিকদার পাড়ার জাফর আলমের পুত্র চিহ্নিত মাদক কারবারী পারভেজ (১৯)। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি পলিথিন ব্যাগে মোড়ানো ৯ হাজার ৯’শ ৫০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া এন্ড অপারেশন্স) সিনিয়র এএসপি আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়েরের পর জব্দকৃত ইয়াবাসহ ধৃত আসামিদের টেকনাফ মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

অপরদিকে স্থানীয় সূত্র জানায়, কিশোর মাদক কারবারী পারভেজ ও তার পিতা জাফর আলম দীর্ঘদিন ধরে কৌশলে মাদক বাণিজ্য চালিয়ে আসছিল।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, উখিয়া, টেকনাফ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 + 1 =

আরও পড়ুন