কালারমারছড়া নোনাছড়ি বাজারে ব্যাবসায়ীর উপর নির্যাতনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

fec-image

মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের নোনাচড়ী বাজারের আমান উল্লাহ নামের এক ব্যাবসায়ীকে পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই জাহাঙ্গীর কর্তৃক নির্যাতনের অভিযোগ এনে এর প্রতিবাদে ব্যাবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে রাস্তায় বিক্ষোভের ডাক দেন৷ বিক্ষোভ চলাকালীন সময়ে দীর্ঘ দুইঘন্টা যাবত যান চলাচল বন্ধ ছিলো।

পরিশেষে স্থানীয় সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক ও উপজেলা চেয়ারম্যান শরীফ বাদশার হস্তক্ষেপে ব্যাবসায়ীরা বিক্ষোভ সমাবেশ হতে সরে আসেন৷

সরেজমিনে ব্যাবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ৫ অক্টোবর আনুমানিক সন্ধ্যা ৭টার দিকে আমান উল্লাহর ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান হতে বিতর্কিত এএসআই জাহাঙ্গীর মামলা হামলার হুমকি দিয়ে তুলে নিয়ে যায় ৷ পুলিশ ফাঁড়িতে শারীরিকভাবে নির্যাতন শেষে প্রায় ঘন্টাখানেক পরে আমান উল্লাহকে আহত অবস্থায় রাস্তার একপাশে ফেলে চলে যায়৷

স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্বার করে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসলে তার অবস্থা দেখে ব্যাবসায়ীরা বিক্ষোভের ডাক দেন ৷  ব্যাবসায়ী নেতারা দাবি করেন, আমান উল্লাহর বিরুদ্ধে কোন ধরনের মামলা মোকদ্দমা নেই ৷ বিশ হাজার টাকা চাঁদা না দেওয়াতে পুলিশ কর্তৃক তার উপরে এহেন ন্যাক্কারজনক হামলা নির্যাতন চালানো হয় ৷

নোনাছড়ী বাজার বণিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি মঞ্জুর আলম সুজনের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে ব্যাবসায়ীরা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন দেশ হতে দূর্নীতির বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষনা করেছেন, সে সময়ে কিছু বিতর্কিত সরকারি অফিসার প্রধানমন্ত্রীর অর্জনকে বিতর্কিত করতে মিশনে নেমেছে ৷

তারই অংশ হিসেবে কাজ করছে বিতর্কিত এএসআই জাহাঙ্গীর ৷ অনতিবিলম্বে বিতর্কিত এএসআই জাহাঙ্গীরকে অপসারণ করা না হলে, কঠোর থেকে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে৷ আমরা চাইনা, শান্ত কালারমারছড়া বিতর্কিত লোকজনের ইন্ধনে অশান্ত হোক বারবার ৷

বিক্ষোভ সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দু শুক্কুর ভেটকা, সাবেক যুবলীগের সহ সভাপতি শামশুল আলম, ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি শওকত আলম, ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি লকিয়ত উল্লাহ ছোটমামা, নির্যাতিত ব্যাবসায়ী আমান উল্লাহ, ব্যাবসায়ী ইঞ্জিনিয়ার আরিফুল ইসলামসহ স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 + eighteen =

আরও পড়ুন