খোঁজ পাওয়া গেছে পানছড়ির কুরআন গবেষক মাওলানা আতীক উল্লাহ’র

fec-image

প্রায় দুইমাস ধরে নিখোঁজ তরুণ আলেম লেখক ও কুরআন গবেষক মাওলানা আতীক উল্লাহর সন্ধান পাওয়া গেছে। তিনি সুস্থ অবস্থায় আছেন। মাওলানা আতীকের পারিবারিক সূত্রে এ খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। মওলানা আতীকের বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলায়।

পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, আজ শনিবার সকালের দিকে মাওলানা আতীক উল্লাহ তাঁর আম্মা ও স্ত্রীকে ফোন করে জানান, তিনি নারায়ণগঞ্জের আদমজী ইপিজেডস্থ র‌্যাব-১১-এর হেড কোয়ার্টারে আছেন।

আতীক উল্লাহর আম্মা তৎক্ষণাৎ আতীক উল্লাহর ভাইকে জানান ব্যাপারটা। আতীক উল্লাহর ভাই ঢাকাতেই ছিলেন। তিনি তাঁদের শুভাকাঙ্ক্ষী আরও দুজনকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জে র‌্যাব-১১-এর হেড কোয়ার্টারে যান। সেখানে গিয়ে জানতে পারেন, আতীক উল্লাহকে কিছুক্ষণ আগে নারায়ণঞ্জ কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

তারা তৎক্ষণাৎ ছুটে যান নারায়ণগঞ্জ কারাগারে। সেখানে গিয়ে জানতে পারেন তাকে কোর্টে নেওয়া হয়েছে। আতীক উল্লাহর ভাইয়েরা তৎক্ষণাৎ নারায়ণগঞ্জ কোর্টে যান। অবশেষে কোর্টে দেখা হয় মাওলানা আতীক উল্লাহর সঙ্গে।

সূত্র জানায়, মাওলানা আতীক উল্লাহর সঙ্গে আজ তার পরিবারের লোকজনের দেখা হয়েছে, কথাও হয়েছে। তিনি সুস্থ আছেন। তবে কীভাবে তিনি র‌্যাব-১১-এরে হেফাজতে গেলেন, তা বিস্তারিত জানা যায়নি। তবে আজ বিকালে তাকে আদালত থেকে নারায়ণগঞ্জ কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৪ অক্টোবর বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে রাজধানীর শ্যামলী থেকে বাড্ডায় যাবার পথে নিখোঁজ হন তরুণ এ আলেম। এর পর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরিবারসহ দেশের অসংখ্য তরুণ মাদরাসা-পড়ুয়া তাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিলেন।

মাওলানা আতীক উল্লাহ রাজধানীর আদাবরস্থ মাদরাসাতুল কুরআনিল কারীমের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। এ মাদরাসা প্রতিষ্ঠার আগে বেশ কিছুদিন তিনি মাওলানা আবু তাহের মেসবাহ (আদীব হুজুর) পরিচালিত রাজধানীর কামরাঙ্গীর চরে মাদরাসাতুল মদীনায় শিক্ষকতা করেছেন। তার আগে চট্টগ্রামের জামিয়া পটিয়া থেকে দাওরায়ে হাদিস পাশ করার পর আরবি সাহিত্য বিষয়ে বেশ কিছুদিন গবেষণা করেছেন।

একজন ভালো আলেম ও শিক্ষক হবার পাশাপাশি কুরআন গবেষণায় তার বিশেষ দক্ষতা রয়েছে। বাংলাভাষায় লেখালেখিতেও তিনি দক্ষতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছেন। এ পর্যন্ত তার লিখিত ২১টির মতো গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nine + three =

আরও পড়ুন