চকরিয়ায় মহাসড়কে নোহা গাড়ির চাপায় পোল্ট্রি ব্যবসায়ী নিহত

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় নোহা গাড়ির চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী হেলাল উদ্দিন (২৮) নামের এক পোল্ট্রি ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এসময় তার সাথে থাকা স্ত্রীও মারাত্মকভাবে আহত হয়েছে।

রোববার(৯ আগস্ট) রাতে উপজেলার আজিজনগর স্টেশন এলাকায় এ দূঘর্টনা ঘটে।

নিহত হেলাল চকরিয়া পৌরসভা ৯নং ওয়ার্ডের পুকুরিয়া মাতব্বর পাড়া এলাকার নাদের হোসেনের ছেলে। হেলাল পেশায় একজন পোল্ট্রি ব্যবসায়ী।

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হেলালের স্বজনরা জানান, ঘটনার দিন পোল্ট্রি ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিন ও তার স্ত্রী দুপুরে মোটরসাইকেল নিয়ে লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শ্বাশুড়িকে দেখতে যান।

হাসপাতালে বেশ কয়েকঘণ্টা অবস্থান করার পর রাতে চকরিয়ায় বাসার উদ্দেশ্য রওনা দেন হেলাল। প্রতিমধ্যে রাত আটটার দিকে আজিজনগর স্টেশন এলাকায় পৌঁছলে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামমুখী একটি নোহা গাড়িটি মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে স্বামী-স্ত্রী দুইজনই সড়কে পড়ে যায়।

ওই সময় নোহা গাড়িটি হেলাল উদ্দিনের বাম পায়ের উপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন মুমূর্ষ অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রীষ্টান হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হলে চিকিৎসকরা তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে।

তাদের বহনকারী এ্যাম্বুলেন্সটি রাত ১টার দিকে সাতকানিয়ায় পৌঁছলে হেলাল মৃত্যুবরণ করে। তবে হেলালের স্ত্রী এখনো শঙ্কা মুক্ত নয় বলে জানান তার স্বজনরা।

নিহতের স্বজনরা আরো জানান, মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রীষ্টান হাসপাতালের চিকিৎসকের অবহেলার কারণে হেলালের মৃত্যু হয়েছে। সেখানে চিকিৎসকরা দুই ঘন্টা ধরে চিকিৎসা না দেয়ায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে।

এ ব্যাপারে মহাসড়কের চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশের ইন্সপেক্টর আনিসুর রহমান কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দূর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হওয়ার ঘটনার বিষয়ে কেউ আমাকে অবহিত করেনি।

এরপরও গাড়িটি চিহ্নিত করে জব্দ করার করার জন্য হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়া, পুলিশ, মেডিকেল কলেজ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − three =

আরও পড়ুন