ছেলেকে সামনে রেখে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন অভিনেত্রী

fec-image

দীর্ঘদিনের লিভ-ইন সম্পর্কের পর অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন টলিউড অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র। শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) গোধূলি লগ্নে পরিচালক প্রেমিক রাতুল মুখার্জির সাতপাকে বাঁধা পড়েন তিনি।

অভিনেত্রীর বিয়েতে হাজির ছিলেন তার একমাত্র ছেলে রিয়ান। ছেলেকে পাশে রেখেই সাতপাক, শুভদৃষ্টি, সিঁদুর দান সবই সম্পন্ন করেন রূপাঞ্জনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিয়ের সেই ছবিও প্রকাশ করেছেন তিনি।

২০০৭ সালে রিজাউল হককে বিয়ে করেন রূপাঞ্জনা মিত্র। দু’জনের ঘর আলো করে জন্ম নেয় পুত্র রিয়ান। তবে দীর্ঘস্থায়ী হয়নি সেই সম্পর্ক। ২০১৮ সালে ডিভোর্সের পথে হাঁটেন টালিগঞ্জের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

এরপরই রাতুল মুখার্জির সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান রূপাঞ্জনা। প্রায় ৬ বছরের লিভ ইন সম্পর্কে ছিলেন এই জুটি। ছেলে রিয়ানও মায়ের কাছেই বেড়ে উঠেছেন। রাতুলের সঙ্গেও তার বেশ ভালো সম্পর্ক।

বয়সে অভিনেত্রীর চেয়ে ছয় বছরের ছোট রাতুল। যে কারণে এই পরিচালকের সঙ্গে প্রেম নিয়ে কম কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়নি রূপাঞ্জনাকে। কিন্তু বয়সের ফারাক তাদের সম্পর্কের মাঝখানে বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি কখনও।

এক সাক্ষাৎকারে রূপাঞ্জনা মিত্র বলেছিলেন— ‘আমি মিষ্টি একটি সম্পর্কে রয়েছি। এই সম্পর্ক আমার কাছে খুবই বিশেষ। রাতুল এবং আমার বয়সের ফারাক রয়েছে ঠিকই। তবে বয়স অনুপাতে ও অনেক ম্যাচিওর। এই সম্পর্ক পূর্ণতা পাক সেটা আমি চাই। বিয়ে করতেও আমার আপত্তি নেই।’

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে মিরিকের ডন বস্কো চার্চে আংটি বদলটা সেরেছিলেন রাতুল-রূপাঞ্জনা। চলতি মাসেই সেরে নিলেন বিয়ে। বিয়েতে লাল রঙের পাঞ্জাবী গায়ে মায়ের পাশে ছিলেন রিয়ান। বেশ হাসিখুশিই দেখা মিলেছে তাদেরকে।

‘পালক’ সিনেমার মাধ্যমে পরিচালনায় হাতেখড়ি হয় রাতুল মুখার্জির। এ সিনেমায় শাশ্বত চ্যাটার্জি ও রূপাঞ্জনা মিত্র প্রধান চরিত্রে দেখা যায়। ‘বাঘ বন্দি খেলা’ শিরোনামের টিভি সিরিয়ালে যুক্ত ছিলেন রাতুল।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন