লবণ, পেঁয়াজের অদৃশ্য ব্যবসা করলে কঠোর ব্যবস্থা

fec-image

কক্সবাজারে নিত্যপণ্যের দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে মতবিনিময় সভায় ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক বলেছেন, কেউ অদৃশ্য ব্যবসা করলে সাথে সাথে এ্যাকশন নেয়া হবে। পেঁয়াজ বিক্রিতে বেশি মুনাফা করার চেষ্টা করা হলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অবশ্য দু-একদিনের ব্যবধানে পেঁয়াজ এখন ১৩০ টাকায় নেমে এসেছে। কয়েকদিনের মধ্যে আরো কমে যাবে। জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান মোবাইল টিম মাঠে রয়েছে সবসময়।

১৯ নভেম্বর (মঙ্গলবার) বিকাল ৫টায় জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. আশরাফুল আফসার।

অপরদিকে লবণ নিয়ে গুজবে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, লবণের দাম বৃদ্ধি হয়েছে বলে খবর ছড়ানো হয়েছে তা নিছক গুজব। এধরনের ভিত্তিহীন গুজবে কাউকে কান না দিয়ে কোন ব্যবসায়ী যদি অতিরিক্ত দাম নেই তাহলে সরাসরি জেলা প্রশাসন ও পুলিশকে অবহিত করার অনুরোধ করেন।

তিনি আরও বলেন, ব্যবসায়ীরা ইচ্ছে করে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি ও দ্রব্যমূল্যের বাজার অস্থিতিশীল করলে মোবাইলকোর্টসহ কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। সরকারকে বিব্রত করতে একটি মহল নানামুখি অপপ্রচারে লিপ্ত। দেশে লবণের কোন সংকট নেই। চাহিদার অতিরিক্ত মজুদ রয়েছে। তবু সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত ও ভীতি সঞ্চার করছে কিছু লোক। এসব অপপ্রচারকারীদের খোঁজে বের করা হবে। কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা। যারা দ্রব্যমূল্য নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে তাদের কঠোর হস্তে দমন করা হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে কঠোর নজরদারিতে রাখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

বৈঠকে ব্যবসায়ীরাও প্রশাসনের কর্তাদের আশ্বস্ত করেন দ্রব্যমূল্য সহনশীল থাকবে। কিন্তু বাস্তবে দেখা যায়, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম সকালের সাথে বিকেলের মিল থাকে না। তাই ভোক্তাদের মনে একটিই প্রশ্ন উঁকি দেয়-নিত্যপ্রয়োজনের পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে থাকবে কী? মতবিনিময় সভার সভাপতির বক্তব্যে আশরাফুল আশরাফ আরো বলেন, কোনো অবস্থাতেই নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি করা যাবে না। প্রশাসন সবসময় শক্ত অবস্থানে রয়েছে।

সভায় বক্তব্য রাখেন-অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা, বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি নুরুল কবির, কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী খোকা, ইসলামপুর লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি শামসুল আলম আজাদ, সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ, জাহেদ সরওয়ার সোহেল, কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: নাছির উদ্দিন, কক্সবাজার দোকান মালিক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি মোস্তাক আহমদ, চাউল ব্যবসায়ী কাজল বড়ুয়া প্রমুখ। সভায় বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের প্রতিনিধি, মালিক সমিতি, সাংবাদিক, ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজারে, পেঁয়াজের, লবণ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 3 =

আরও পড়ুন