স্কুল ছাত্রী মরিয়মের স্বপ্ন পূরণে অনিশ্চিয়তা!

পেকুয়া প্রতিনিধি:

পেকুয়ার মেধাবী স্কুল ছাত্রী মরিয়মের জীবনের স্বপ্œ পূরণে অনিশ্চিয়তার ঢেউ দেখা দিচ্ছে অকালে। তার জীবনকে বাধাঁগ্রস্ত করেছে মরণব্যাধি ক্যান্সার। মরিয়ম পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের ধনিয়াকাটা এলাকার মো. কালুর মেয়ে ও বারবাকিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী। মরিয়মের স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হয়ে গ্রামের মানুষকে সেবা করা।

মেয়েটার মনেও হয়তো অনেক স্বপ্ন ছিল -পড়ালেখা শেষ করে মানুষের মতো মানুষ হবে। কিন্তু, দূরারোগ্য ক্যান্সারের সাথে লড়াই করতে গিয়ে শেষ হয়ে আসছে তার জীবনী শক্তি। যে সময়ে তার বই-খাতা নিয়ে স্কুলে যাওয়ার কথা, যে সময়ে তার মা-বাবার চোখের মণি হয়ে থাকার কথা, সেই সময়ে সে পড়ে আছে হাসপাতালের বিছানায়। ছড়পড় করছে সে জীবন সংগ্রামে। পড়ে গিয়ে সামান্য আঘাত থেকে আজ তার ক্যান্সার।

একজন মরিয়ম না থাকলে এই পৃথিবীর কিছুই হবে না, আমার বা আপনার কোনো ক্ষতিই হয়তো হবে না। কিন্তু প্রস্ফুটিত হবার আগেই কি একটি ফুল ঝরে যাবে? যদি তাই হয়, আমরা কি নিজেদের বিবেকের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ হবনা? মানুষতো মানুষের জন্যই। আসুন, আমরা সবাই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিই।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দীর্ঘদিন চিকিৎসা শেষে, রোগীকে দেশের বাইরে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এর জন্য প্রয়োজন বিশাল অংকের টাকা। আর এই টাকা যোগাড় করা তার দরিদ্র পিতা-মাতার পক্ষে সম্ভব না কোনো মতেই। আমরা নিজেদেরকে মরিয়মের বাবা-মা বা ভাইয়ের জায়গায় বসিয়ে একটু কল্পনা করি, তারা কতটা অসহায়। আমি আজ খুব কাছ থেকে তার মায়ের অসহায়ত্ব দেখেছি।

সমাজের অনেক বিত্তবান মানুষরা যদি এগিয়ে আসেন মরিয়ম হয়তো জীবন ফিরিয়ে পাবে। আমাদের সকলের আন্তরিক সহযোগীতায় সুস্থ হতে পারে মরিয়ম। মায়ের বিকাশ একাউন্ট নম্বর. ০১৮৭৬৩৮৯৬৫৭ (ব্যক্তিগত)।

ঘটনাপ্রবাহ: স্কুল ছাত্রী মরিয়মের স্বপ্ন পূরণে অনিশ্চিয়তা!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − sixteen =

আরও পড়ুন