আসামের মুসলিম গণহত্যা লজ্জা! লজ্জা! লজ্জা!- মমতা বন্দোপাধ্যায়

533fa08187e47-Momota

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, পার্বত্যনিউজ:

ভারতের আসাম প্রদেশে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের উপর পরিচালিত গণহত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েয়েছেন পশ্চিম বঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। মোদী ও বিজেপি’র নাম উল্লেখ না করে তিনি এ হত্যাকাণ্ডের জন্য ভারতের কোনো কোনো রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের উষ্কানীমূলক বক্তব্য দায়ী বলে অভিযোগ করেছেন। একই সাথে তিনি নির্যাতিত মুসলিম শরণার্থীদের জন্য তার রাজ্যের দরজা উন্মুক্ত বলেও ঘোষণা দিয়েছেন। আজ রবিবার মমতা তার ফেসবুক প্রোফাইলে দেয়া এক স্ট্যাটাসে এ মন্তব্য করেন।

ফেসবুকে মমতা লিখেছেন, ‌‌“সম্প্রতিকালে আসামের বাংলাভাষী মুসলিম সংখ্যালঘু ও উপজাতি সম্প্রদায়ের উপর নির্মম হত্যযেজ্ঞের ঘটনায় আমরা খুবই মর্মাহত। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।

আসামে লোকসভা নির্বাচন সমাপ্ত হয়েছে। কিন্তু ভারতের অন্যান্য অংশে এখনো লোকসভা নির্বাচনের কর্মকাণ্ড চলছে। কতিপয় রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের কিছু মন্তব্য এই হত্যাযজ্ঞে জ্বালানী যুগিয়েছে। তাদের মুখে অবশ্যই লাগাম দিতে হবে এবং তাদের আগুন নিয়ে খেলা বন্ধ করতে হবে, বিশেষ করে যার সাথে নিরীহ মানুষের জীবনের প্রশ্ন জড়িত”।

মমতা বলেন, “আমাদের সীমান্ত রাজ্য হওয়ায় আসামের এই ঘটনা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। আমরা অতীতেও ক্ষতিগ্রস্ত লোকদের সহায়তা করেছি। মানবিক বিবেচনায় এখনো আমরা নির্যাতিত লোকদের জন্য আমাদের দরোজা খোলা রেখেছি।

কিন্তু কেন্দ্রীর সরকার ও আসাম সরকার এ ঘটনায় নীরব কেন? কেন মানবাধিকার কমিশন, সংখ্যালঘু কমিশন ও উপজাতীয় কমিশন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছেন না?

আমরা সরকার ও সকল রাজনৈতিকদেলের কাছে এই নির্যাতন ও হত্যাযজ্ঞ বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি। এই গণহত্যার তীব্র নিন্দা জানাই। এটা লজ্জা! লজ্জা! লজ্জা!

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

One Reply to “আসামের মুসলিম গণহত্যা লজ্জা! লজ্জা! লজ্জা!- মমতা বন্দোপাধ্যায়”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × 4 =

আরও পড়ুন