খাগড়াছড়িতে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে চুক্তি বাস্তবায়ন ও জুম্ম জাতির অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি

fec-image

‘শিক্ষা সংহতি সাম্য প্রগতি’ তেউজ্জীবিত “জাতীয় অস্তিত্ব ও জন্মভূমির অস্তিত্ব রক্ষার্থে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নে ছাত্র সমাজ বৃহত্তর জুম্মজাতীয় ঐক্য গড়ে তুলুন” এ স্লোগানে খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক সমর্থিত বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) ৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

শুক্রবার (২০ মে) সকালে উপজেলার কল্পরঞ্জন মাঠে বেলুন উড়িয়ে প্রতিষ্ঠার উদযাপনের কর্মসূচি সূচনা হয়। কর্মসূচির উদ্বোধন করেন, জেএসএস (এমএন লারমা সমর্থিত) এর কেন্দ্রীয় কমিটির রাজনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক বিভূরঞ্জন চাকমা। পরে বর্ণাঢ্য একটি র‌্যালি উপজেলা প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কল্পরঞ্জন মাঠে এসে শেষ হয়।  র‌্যালি শেষে জাতীয় সঙ্গিত পরিবেশেনের মাধ্যমে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা অমর জ্যোতি চাকমা। দলীয় সঙ্গিতের মধ্য দিয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) র সভাপতি দীপন চাকমা।

প্রথম অধিবেশনে ছাত্র সমাবেশ ও দ্বিতীয় কেন্দ্রীয় কাউন্সিল এপিসিপির কেন্দ্রীয় সভাপতি দীপন চাকমার সভাপতিত্বে পিসিপির কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক জেসলেন চাকমার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা অমর জ্যোতি চাকমা। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেএসএস (এমএন লারমা সমর্থিত) এর সহ-সভাপতি প্রীতি খীসা, ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক এর কেন্দ্রীয় ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক অমল কান্তি চাকমা।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, পিসিপির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রহেলচাকমা, সাংগঠনিক সম্পাদক সুবরন চাকমা, পিসিপির দীঘিনালা কলেজ সভাপতি সুভাষ চাকমা, খাগড়াছড়ি কলেজ সভাপতি বিজয় চাকমা প্রমুখ।

বক্তারা রাষ্ট্রীয় সব ধরনের সুযোগ-সুবিধাসহ মেডিকেল, ইঞ্জিনিয়ার, পাবলিক বিশ্ববিদ্যাল সমুহে ৫% কোটাব্যবস্থা চালু ও কার্যকর, রাষ্ট্রের সকল সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে পাহাড় সমতলে কোটা ব্যবস্থা পুনর্বহাল রাখার দাবি করেন।

এছাড়াও পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি মোতাবেক স্ব-স্ব মাতৃভাষায় সরকারিভাবে প্রাথমিক পর্যায়ে নিজস্ব মাতৃভাষায় শিক্ষক নিয়োগ ও দ্রুত কার্যকর করা ও অনগ্রসর জুম্ম বেকার শিক্ষিতদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির দাবি জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

দ্বিতীয় অধিবেশনে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)’র দ্বিতীয় কেন্দ্রীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে দীপন চাকমাকে সভাপতি, রহেল চাকমাকে সাধারণ সম্পাদক ও উচিং মারমাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করা হয়।

 

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইউপিডিএফ, ইপিডিএফ, খাগড়াছড়ি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 2 =

আরও পড়ুন