ঘুমধুমে পৃথক অভিযানে বিদেশী ও চোলাই মদসহ আটক ৪

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তে পৃথক অভিযানে বিদেশী মদ ও স্থানীয় তৈরি চোলাই মদসহ ৪ মাদক পাচারকারীকে আটক করা হয়েছে।

রবিবার ও সোমবার ঘুমধুম ইউনিয়নের বড়ইতলী এলাকা থেকে এসব মাদকসহ পাচারকারীদের আটক করা হয়।

সোমবার(২৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে বিদেশী মদসহ আটকৃতরা হলো- উখিয়া উপজেলার হলুদিয়া পালং ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. হোসেনের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম ও রামু উপজেলার খুনিয়া পালং ইউনিয়নের আবুল হোসেনের ছেলে আব্দুল আলম। আটকৃতদের হেফাজত থেকে ৩২বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার করা হয়।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মিয়ানমার থেকে চোরাই পথে এনে বিদেশী মদ পাচার হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঘুমধুম পুলিশ ফাঁড়ির একটি অপারেশন দল অভিযান চালায়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক পাচারকারীরা পালানোর চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে কয়েকটি কার্টুনে ভর্তি ৩২ বোতল বিদেশী মদ (ড্রাইজিং) উদ্ধার করা হয়।

আটকৃত দুইজন ও পলাতক একজনসহ মোট ৩ জনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট মাদকপাচার আইনে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় মামলা করা হয়েছে।

এদিকে রবিবার একই এলাকা থেকে ২৫ লিটার চোলাই মদসহ আরও দুইজনকে আটক করা হয়। আটকৃতরা হলো উখিয়া উপজেলার হলুদিয়া বালুছড়া গ্রামের মো. আলমের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম ও ঘুমধুম ইউনিয়নের মনজয়পাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে আব্দুল গফুর।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে ঘুমধুম পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন বলেন- দুই দিনের পৃথক অভিযানে আটকৃতদের বিরুদ্ধে মামলার পর আদালতে পাঠানো হয়। মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, চোলাই, মদসহ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 3 =

আরও পড়ুন