চকরিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে সিংহী নদী মৃত্যু

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় ডুলাহাজারাস্থ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ১৩ বছরের স্ত্রী সিংহী নদীকে বাঁচাতে একাধিক মেডিকেল বোর্ড গঠন করেও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাসেবা প্রদান করার পরও আর বাঁচানো গেল না। পার্কের পুরুষ সিংহ সম্রাটের কামড়ে গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় শেষ পর্যন্ত মারা গেল সিংহী নদী।

শুক্রবার (২২ এপ্রিল) সকাল ছয়টার দিকে পার্কের বেষ্টনীতে সিংহী নদী মারা যায়। সিংহী নদী মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পার্কের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক মো. মাজহারুল ইসলাম।

এ ঘটনায় চকরিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি রুজু করেছেন সাফারী পার্ক কর্তৃপক্ষ। এর আগে ১৯ ফেব্রুয়ারি বেষ্টনীতে পুরুষ সিংহ সম্রাট কামড় দেয় স্ত্রী সিংহ নদীকে। এতে নদীর গলায় বেশ চোট লাগে। এরপর থেকে অনবরত ক্ষতস্থান দিয়ে পানি ঝরতে থাকে নদীর। এই অবস্থায় নদীর চিকিৎসায় দুটি মেডিকেল বোর্ড গঠনসহ বিশেষজ্ঞ একাধিক ডাক্তারের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হলেও বাঁচানো যায়নি সিংহী নদীকে।

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘বেষ্টনীতে কামড়াকামড়িতে লিপ্ত হয় পুরুষ সিংহ সম্রাট ও স্ত্রী সিংহী নদী। এতে সম্রাটের কামড়ে নদীর গলায় বেশ চোট লাগে। এর পর থেকে নদীর চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু নদী ভোর ৬টার দিকে মারা যায়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়া, চকরিয়ায়, বঙ্গবন্ধু
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × four =

আরও পড়ুন