চকরিয়ায় সরকারি বনাঞ্চলে ১৫টি অবৈধ বসতি উচ্ছেদ

fec-image

চকরিয়া উপজেলার কাকারা বনবিটের ছাইল্যাতলী ঘোনা এলাকায় অবৈধ বসতি উচ্ছেদ করছে বনকর্মীরা।

কক্সবাজার উত্তর বন বিভাগের চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জের আওতাধীন কাকারা বনবিটের ছাইল্যাতলী ঘোনা এলাকায় সংরক্ষিত বনাঞ্চলের জায়গা জবরদখলে সদ্য নির্মিত অন্তত ১৫টি অবৈধ বসতি উচ্ছেদ করেছে বনকর্মীরা।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বন বিভাগের সহকারী বনসংরক্ষক সোহেল রানার নির্দেশে ফাসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মাহহারুল ইসলামের নেতৃত্বে বনকর্মীরা অভিযান চালিয়ে ১৫টি বসতি গুড়িয়ে দিয়ে বনাঞ্চলের প্রায় ১০ একর জায়গা উদ্ধার করেছেন।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ফাসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম।

তিনি বলেন, কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের মালিকানাধীন চকরিয়া উপজেলার কাকারা বনবিটের ছাইল্যাতলী ঘোনা এলাকায় আরএস (নং ৪৮৫০) খতিয়ানভুক্ত সংরক্ষিত বনাঞ্চল জায়গা দখলে নিয়ে সম্প্রতি সময়ে কিছু ব্যক্তি সেখানে অবৈধ বসতি নির্মাণ করেন।

পরবর্তীতে এসব জায়গা দখলবাজ চক্রের লোকজন প্লট আকারে বিক্রি করে টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। ঘটনাটি জানতে পেরে সর্বশেষ মঙ্গলবার দুপুরে সেখানে অভিযান চালিয়ে সদ্য নির্মিত ১৫টি অবৈধ বসতি উচ্ছেদ করা হয়েছে।

অভিযানে ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ মাজহারুল ইসলাম ছাড়াও কাকারা বনবিট কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির এবং চকরিয়া থানা পুলিশের একটি দল অংশনেন।

ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ মাজহারুল ইসলাম বলেন, বনবিভাগের সংরক্ষিত বনাঞ্চলের জায়গা জবরদখলের ঘটনায় আমরা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানাই। কিন্তু তিনি এসব বসতি সমুহ দীর্ঘদিন আগে নির্মিত হয়েছে বলে দাবি করেন।

এলাকার কতিপয় চক্র বনাঞ্চলের জায়গা দখলে নিয়ে অবৈধ বসতি নির্মাণের পাশাপাশি পাহাড় কেটে মাটি লুটের ঘটনায়ও জড়িত বলে দাবি করেন ইউপি চেয়ারম্যান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পাহাড়, বনাঞ্চল, রেঞ্জ কর্মকর্তা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − 1 =

আরও পড়ুন