টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন: মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন বিতর্কিত ব্যক্তিরাও

fec-image

আসন্ন টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের প্রথম দিনে চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, সদস্য পদে ১৪ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৪ জন উপজেলা রিটানিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ফরম সংগ্রহ করছেন।

উপজেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, সারাদেশে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে পেকুয়া উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যেই সর্বপ্রথম উপজেলার ২নং টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তালিকায় আসে। এরই প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন তপসিল ঘোষণা করে। তপসিল অনুযায়ী ফরম সংগ্রহ ও জমাদানের শেষ তারিখ ১৮ মার্চ, প্রার্থীতা যাচাই-বাছাই ১৯ মার্চ, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ২৪ মার্চ, প্রতীক বরাদ্দ ২৫ মার্চ, নির্বাচন ১১ এপ্রিল।

তথ্যসূত্রে জানা যায়, আসন্ন টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, সদস্য পদে ১৪ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৪ জন ফরম সংগ্রহ করছেন। চেয়ারম্যান পদে ফরম সংগ্রহ করছেন তাঁরা হলেন গত বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ১৫ টন ত্রাণের চাল আত্মাসাৎ করার অভিযোগে চেয়ারম্যানের পদ থেকে বহিস্কৃত এবং টইটং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, তারই সহধর্মিণী শামিমা নাছরিন সায়মা, ডা. কফিল উদ্দিন, বর্তমান মেম্বার শাহাদত হোছাইন, ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবসায়ী ও শ্রমিক নেতা নূরুল আমিন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী টইটং পেন্ডারবাড়ির বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম প্রকাশ নাবালক মিয়ার পুত্র। সে শিক্ষাজীবনে টইটং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গন্ডি পার হয়ে টইটং উচ্চ বিদ্যালয় হতে এস এসসি, আনোয়ারা কলেজ থেকে এইচ এস সি, চট্টগ্রাম এম ই এস কলেজ থেকে বি, এ, চট্টগ্রাম সিটি কলেজ থেকে এম এ ডিগ্রি অর্জন করেন। রাজনৈতিক জীবনে তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ টইটং উচ্চ বিদ্যালয় শাখার সভাপতি, পরে ছাত্রলীগের ইউনিয়ন শাখার সভাপতি, ছাত্রলীগের সরকারি সিটি কলেজ শাখার যুগ্ম সম্পাদক, সর্বশেষ ২০০৫ সালে টইটং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও টইটং উচ্চ বিদ্যালয় ও বটতলী শফিকিয়া মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। গত নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে তিনি এলাকায় বেশ উন্নয়ন যেমন করছেন তেমনি এলাকায় আতংক বিরাজ করেছিলেন।

তিনি আবারও ক্ষমতাসীন দলের নৌকা প্রতীক পেতে মরিয়া হয়ে দৌঁড়ঝাপ শুরু করেছেন, সরকারী চাল আত্মসাতের অভিযোগে চেয়ারম্যান পদ হতে বহিষ্কার হন । চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠায় তাকে টইটং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক পদ থেকেও বহিস্কার করা হয়েছে। টইটং ইউনিয়ন থেকে এবার ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের একাধিক নেতাকর্মী ভোট গ্রহন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তারাও নৌকা প্রতীক পেতে দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন। জাহেদ চৌধুরী নৌকা পেতে মরিয়া হয়ে উঠায় হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয়েছেন স্থানীয় ক্ষমতাসীন দলের তৃণমুলের নেতাকর্মী। ইতিমধ্যে শূন্য হওয়া পেকুয়ার টইটং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তপসিল ঘোষণা করেছেন নির্বাচন কমিশন।

আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে নির্বাচন। চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে লড়তে দৌঁড়ঝাপ শুরু করেছেন অনেক রাজনৈতিক ও সমাজকর্মীরা। বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহন না করার ঘোষণা করায় এককভাবে প্রভাব বিস্তার করে পূনরায় চেয়ারম্যান হওয়ার মেরুকরণ কষছেন বহিস্কৃত চেয়ারম্যান জাহেদ চৌধুরী। ইতিমধ্যে তিনি জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের কাছে ধর্নাও দিচ্ছেন এমন অভিযোগ তৃনমুল নেতাকর্মীর।

গত বছরে জুলাই মাসে করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন মানুষের সরকারিভাবে দেওয়া ত্রান (চাল) চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী বিতরন না করে নিজেই লুটপাট করেছেন। জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শাহ জাহান আলী সরেজমিন তদন্তে চাল চুরির অভিযোগ প্রমানিত হয়। সাবেক জেলা প্রশাসক কামাল হোসেনের নির্দেশে পেকুয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে টইটং ইউপির চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে সরকারি ত্রান চুরি করে বিক্রির অভিযোগে পেকুয়া থানায় মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে চাল চুরি ও মামলার কারনে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশে জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা ও সাধারন সম্পাদক মুজিবুর রহমান মেয়র অভিযুক্ত জাহেদুল ইসলাম চৌধুরীকে টইটং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদ হতে বহিষ্কার করেন। বহিস্কার আদেশ এখনো পর্যন্ত বলবৎ আছে।

অন্যদিকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও টইটং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদ হতে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করার ফলে চেয়ারম্যান পদটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচনের নির্দেশনা দেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়। দীর্ঘ আটমাস পরে সেই কাঙ্খিত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১১ এপ্রিল। এদিকে নির্বাচনকে ঘিরে আনন্দভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে ওই ইউপিতে। আবার অজানা আতংকও বিরাজ করছে জনগনের মাঝে। দল ও সরকার হতে বহিস্কৃত আলোচিত সমালোচিত জাহেদ চৌধুরী নৌকা প্রতীক পেতে এক পায়ে মরিয়া। ধর্না দিচ্ছে জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দের কাছে।

শামীমা নাছরিন সায়মা তিনি উপজেলা আওয়ামী মহিলা লীগের সহ-সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি গত বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ১৫ টন ত্রাণের চাল আত্মাসাৎ করার অভিযোগে চেয়ারম্যানের পদ থেকে বহিস্কৃত এবং টইটং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অব্যাহতি প্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম চৌধুরীর সহধর্মিণী। ডা. কপিল উদ্দিন তিনি একজন ব্যবসায়ী এবং জনপ্রিয় বটে।

শাহাদাত হোছাইন দুইবারের নির্বাচিত ইউপি সদস্য। এবার স্বতন্ত্রভাবে চেয়ারম্যান প্রার্থী হচ্ছেন তিনি। শাহাদাত হোছাইন সাবেক চেয়ারম্যান জাকের আহমদ চৌধুরীর সন্তান। তিনি গত নির্বাচনে নির্বাচিত হয়ে আলোচিত ফরায়েজী হত্যা মামলায় ষড়যন্ত্রের শিকার আসামী করায় শপথ নিতে পারেনি। পরে উচ্চ আদালতের আশ্রয় নিয়ে শপথ গ্রহন করে।

নুরুল আমিন একজন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবসায়ী । তিনি পেকুয়া ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের সত্বাধিকারী। তিনি সকলের পরিচিত মুখ।

এ ব্যাপারে উপজেলা রির্টানিং অফিসারের বরাত দিয়ে হামিদ হোছাইন জানান টইটং ইউপি নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের প্রথম দিনে চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, সদস্য পদে ১৪ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৪ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করছেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইউনিয়ন পরিষদ, টইটং, নির্বাচন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + 3 =

আরও পড়ুন