লকডাউনে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক ভবনে মানুষের ভিড়!  

fec-image

বুধবার (৮ এপ্রিল) থেকে কক্সবাজারকে লকডাউন ঘোষণা দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন। এসময় লকডাউন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়ে একটি প্রজ্ঞাপনও জারি করা হয়।

কিন্তু লকডাউন ঘোষণার ২৪ঘন্টা যেতে না যেতে খোদ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে শত শত নারী পুরুষের গণ জমায়েতের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) বিকাল ৪টার দিকে জেলাপ্রশাসকের কার্যালয়ের ত্রাণ শাখার নিচে এ গণজমায়েত এর ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। সাংবাদিক ইমাম খাইয়ের গণজামায়েত এর দুটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, এটা কিসের জামায়েত? কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ত্রাণ শাখার নিচে প্রচুর লোক জড়ো হয়ে আছে। জানি না তারা কেন এসেছে? করোনা পরিস্থিতিতে এত কড়াকড়ির মাঝে প্রশাসনের নাকের ডগায় এটি আতংকের ছবি!

তিনি আরও বলেন, করোনা ছড়ানোর ভয়ে যে সময়ে ৫ জনের বেশি লোক মসজিদে নামাজ পড়া নিষেধ; পুরো জেলা লকডাউন, সেসময়ে এমন দৃশ্যটি মোটেও প্রত্যাশিত নয়। দৃশ্যটি শুধু আজকের নয়, প্রায় সময় দেখা যায়। জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

উক্ত পোস্টের ৫০জনের ফেসবুক ব্যবহারকারি মন্তব্য করেছেন, সেখান থেকে কয়েকটি মন্তব্য হুবহু তুলে ধরা হলো, জাতীয় দৈনিক খোলা কাগজের জেলা প্রতিনিধি মো. নেজাম উদ্দীন মন্তব্য করেছেন, যেখানে ৫ জনের বেশি মসজিদে নামাজ পড়তে দিচ্ছে না সেখানে ডিসি স্যারের অফিসের নিচে এতো লোকের জমায়েত! সত্যি প্রশ্ন জাগে আদৌ কি আমরা মানুষ।

আরেক সাংবাদিক শাহাদাত হোসাইন লিখেছেন, আমি সপ্তাহ ধরে দেখছি, প্রতি বিকালে।
সদর হাসপাতালের ডাক্তার মোঃ শাহাজান লিখেছেন, চেরাগের তলায় অন্ধকার!
আক্তারুল আলম নামের একজন লিখেছেন, এখানে করোনা সংক্রমনের প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে ! যেহেতু এরা প্রশাসনের ছায়াতলে সেহেতু এখানে সংক্রমনের সম্ভাবনা নেই !

গণজমায়েত এর বিষয়ে জানতে চেয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের ব্যবহৃত সরকারি নাম্বারে একাধিকবার চেষ্টা করে সংযোগ পাওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen − 15 =

আরও পড়ুন