সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপে

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ১২ নেতাকর্মী বহিষ্কার 

fec-image

বিভিন্ন সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপ ও ঠিকাদারের উপর হামলার কারণে বান্দরবানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ১২ নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেছে বান্দরবান স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও রাজনৈতিক অঙ্গনের নেতৃবৃন্দ।

বহিষ্কৃতরা হলেন, মোহাম্মদ ফারুক আহমেদ ফাহিম, সোহাগ, রিমন, মুন্না, ভান্ডারী, মোহাম্মদ সোহেল, মোঃ সোহাগ, মোহাম্মদ আলী, মোহাম্মদ হেলাল, মোহাম্মদ ফিরোজ, বেলাল, ও বাপ্পি।

মঙ্গলবার(১৮ জুন ) রাতে এক জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয় বান্দরবানে রাজনৈতিক অঙ্গনের সকল নেতৃবৃন্দ।

বান্দরবানের উর্ধ্বতন রাজনীতিবিদরা জানান,  বান্দরবানে পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুরের আদর্শকে অনুসরণ করে সুনামের সাথে বান্দরবানে রাজনীতি করে যাচ্ছে। কিন্তু কিছু কিছু মানুষের জন্য এই রাজনৈতিক অঙ্গনে সুনামটাকে মানুষ ঘৃণার চোখে দেখবে।

তারা আরো জানান, আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে দেশনেত্রী শেখ হাসিনার সকল কার্যক্রমকে অনুসরণ করে বান্দরবানকে অন্যান্য প্রত্যেক জেলা থেকে আলাদা করে তুলে ধরার চেষ্টা করছি, যারা আমাদের এই সুনামটা নষ্ট করে বান্দরবানের রাজনৈতিক অঙ্গনে কালিমার দাগ দিবে তাদেরকে আমরা এ রাজনৈতিক সংগঠনের সদস্য হওয়ার যোগ্য বলে মনে করি না।

উল্লেখ্য যে বান্দরবানে স্বেচ্ছাসেবক নেতা ফারুক আহমেদ ফাহিমের নেতৃত্বে বান্দরবানের নীলাচল সড়কে এক ঠিকাদারকে গুরুতর ভাবে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। আর এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষুব্ধ বান্দরবান আওয়ামী লীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহ সকল অঙ্গসংগঠনের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

বহিষ্কারের বিষয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ফারুক আহমেদ ফাহিমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান নীলাচল সড়কে তিনি তার পরিবার নিয়ে বেড়ানোর সময় তার বোনকে ঠিকাদার কটুক্তি কথা বলে, তাই তিনি তার প্রতিবাদ জানান আর সে কারণে তাকে আজ দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × four =

আরও পড়ুন