গুইমারায় ইটভাটার জন্য ফসলি জমির উপরিভাগ কাটার দায়ে এক লক্ষ টাকা জরিমান


গুইমারা প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির গুইমারায় ইটভাটার জন্য ফসলি জমির উপরিভাগ কেঁটে নেওয়ার সময় ভ্রাম্যমান আদালত কর্তৃক এক লক্ষ টাকা জরিমান করা হয়েছে।

ইটভাটার মালিকরা কৃষককদের পারিবারিক অভাব অনটনের সুযোগ নিয়ে তিন ফসলি জমির উপরিভাগ(টপসয়েল) কেটে নিচ্ছে ইট ভাটায় এমন সংবাদ শুনে মঙ্গলবার বিকাল পাঁচটায় গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (অ:দা:) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিভীষন কান্তি দাস এ অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযানকালে খাগড়াছড়ি পরিবেশ আন্দোলনের সভাপতি সাংবাদিক প্রদীপ চৌধুরী ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজ কুমার শীল উপস্থিত ছিলিন।

এসময় স্ক্যাভেটর চালক মো. রুবেল ও ট্রাক চালক মো. ওমর ফারুককে আটক করা হয়। পরে ইট প্রস্তুত ও ভাটা নিয়ন্ত্রন আইন ২০১৩ এর(১)এর (ক) ধারার বিধান মোতাবেক এক লক্ষ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে দুজনকে সাত দিনের কারাদণ্ড প্রদান করেন ভ্রাম্যমান আদালতের র্নিবাহী মেজিস্ট্রেট বিভীষন কান্তি দাস।

স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা জানান, উপজেলার তিনটি ইট ভাটার মালিকরা জমি থেকে আমন ধান উঠার পরপরই গরিব কৃষকদেরকে সামান্য অর্থের লোভ দেখিয়ে ফসলি জমির টপ সয়েল ক্রয় করে স্ক্যাভেটার দিয়ে কেটে পাশের ইটভাটায়া নিয়ে যায়। এতে করে একদিকে ফসলি জমিগুলোর উর্বর শক্তি নষ্ট হয়েে যাচ্ছে অপরদিকে দিনে দিনে ফসলি জমির পরিমান ও কমে যাচ্ছ।

এযাবৎ কালে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জোরালো কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এবারই শুধু মাটি কাটার দায়ে এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তাও তিনটি ইট ভাটার মধ্যে মেসার্স কামাল ব্রাদাসকে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করেছে।প্রশাসনের এমন পদক্ষেপ উপজেলার সকল ইটভাটায় প্রত্যাশা করছে তাঁরা।

এবিষয়ে অভিযান পরিচালনাকারী গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (অ:দা:) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিভীষন কান্তি দাস বলেন, অবৈধ ভাবে ইটভাটার জন্য জমির উপরিভাগ কেটে নেওয়ার দায়ে সংশ্লিষ্ট এক লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে এবং এধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 − 2 =

আরও পড়ুন