কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ২ রোহিঙ্গা নিহত

fec-image

কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে দুইজন রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত সাত জন। রোববার ভোর ৫ টার দিকে উখিয়ার কুতুপালংয়ের ব্লক ডি-৫ এবং ই-ব্লকের মাঝামাঝি স্থানের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, ওই রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ইমাম শরীফ (৩০) ও শামশুল আলম (২৮)। আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তাদের উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতাল ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন স্বাস্থ্য ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে গত ৩০ সেপ্টেম্বরও স্থানীয় মুন্না গ্রুপ ও আনাস গ্রুপের মধ্যে অভ্যন্তরিণ দ্বন্ধ নিয়ে বিক্ষিপ্তভাবে একের পর এক সংঘর্ষ চলে আসছিল।

রোববার সকালে কুতুপালংস্থ ক্যাম্প-২ ইস্ট থেকে দু’জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ সামছু দ্দৌজা।

তিনি আরো জানান, ঘটনার বিস্তারিত এখনও জানা যায়নি। তবে দুটি মৃতদেহ ক্যাম্পে পড়েছিল। পরে এগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার বিস্তারিত জানার পর জানানো হবে।

উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দায়িত্বরত ১৪নং এপিবিএনের ইন্সপেক্টর ইয়াছিন ফারুক জানান, ‘নিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের একটি গ্রুপের সঙ্গে অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মধ্যে অভ্যন্তরিণ দ্বন্ধ ও আধিপত্য নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় ভোররাতে দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে দুইজন নিহত হয়েছে। এর আগে ৩০ সেপ্টেম্বর একইভাবে সংঘর্ষে ১৫জনেরও বেশী রোহিঙ্গা আহত হয়েছে।’

স্থানীয়রা জানান, ক্যাম্পে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ২ গ্রুপে এমন ঘটনা নতুন নয়। এ ধরনের ছোট বড় ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে।

উখিয়া থানার ওসি আহমেদ সনজুর মোর্শেদ জানান, ঘটনার আদ্যোপান্ত জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। দুজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: রোহিঙ্গা, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

7 + twenty =

আরও পড়ুন