মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা : বিদ্রোহী জোটের সমর্থন

fec-image

রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালানোর জন্য মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলাকে সমর্থন জানিয়েছে দেশটির বিদ্রোহী গ্রুপগুলোর জোট।

নর্দান এলায়েন্স নামে পরিচিত তিনটি বিদ্রোহী গ্রুপের জোট বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) এক যৌথ বিবৃতিতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালত (আইসিসি) ও আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালত (আইসিজে)-এ দায়ের করা মামলাকে স্বাগত জানায়। এই জোটে রয়েছে তাং ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি (টিএনএলএ), আরাকান আর্মি (এএ) ও মিয়ানমার ন্যাশনাল ডেমক্রেটিক এলায়েন্স আর্মি।

গ্রুপটি জানায় যে, গত ৭০ বছর ধরে এবং চলমান সংঘাতে মিয়ানমার সেনাবাহিনী গণহত্যা, বিচারবহির্ভুত গ্রেফতার, অমানবিক নির্যাতন, ম্যাসাকার, অপহরণ ও দলবদ্ধ ধর্ষণকে যুদ্ধের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেছে।

বিদ্রোহী জোট মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অপকর্মের প্রমাণ সরবরাহ করতে প্রস্তুত বলেও জানিয়েছে।

টিএনএলএ মুখপাত্র মাই আইক কিয়াও জানান যে, তারা সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে জাতিগত নিপীড়নের তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ করেছেন।

মুখপাত্র টেলিফোনে একটি বার্তা সংস্থাকে বলেন, কেউ কেউ আমাদেরকে সন্ত্রাসী বলে। কিন্তু আমরা মনে করি যারা সেনাবাহিনীর হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছে তাদেরকে ন্যায়বিচার পাইয়ে দেয়ার এটাই একমাত্র উপায়।

সূত্র: সাউথএশিয়ানমনিটর

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: মিয়ানমার, রাখাইন, রোহিঙ্গা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − four =

আরও পড়ুন