রাঙ্গামাটির ১০টি উপজেলায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের শিক্ষকগণ চার মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না

fec-image

ইসলামী ফাউন্ডেশনের আওতায় রাঙ্গামাটি জেলার মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের ৬২৯জন শিক্ষক-শিক্ষিকা গত ৪মাস ধরে বেতনভাতা না পাওয়ায় চরম মানবেতর দিন যাপন করছে বলে জানা যায়।

বাংলাদেশের বৃহৎ রাঙ্গামাটি জেলার দশটি উপজেলার বিভিন্ন দূর্গম পাহাড়ি এলাকায় বিগত বছর যাবৎ সুনামের সহিত ইসলামিক ফাউন্ডেশনের শিক্ষকরা পাঠদান করে আসছে। বর্তমানে করোনা সংকটময় পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষকরা জানুয়ারি হতে এপ্রিল পযন্ত এ ৪মাস স্বল্প বেতনের শিক্ষরা বেতন না পাওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে দুর্দিনের মধ্যে দিন যাপন করছে।

মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষার শিক্ষক মো. কবির হোসেন, হাফেজ আবুল কালাম, রেহেনা বেগম জানান, আমরা বর্তমানে মনবেতর জীপন যাপন করছি। আমাদের চার মাসের সম্মানি ভাতাগুলো পেলে পরিবারের ছোট শিশুসহ সকলকে নিয়ে চলতে পাড়তাম। বর্তমানে আমরা চরম সংকটে জীপন যাপন করছি।

কেয়ার টেকার সিরাজুল ইসলাম জানান, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত শিক্ষকদের বকেয়া বেতনভাতা পরিশোধ করা হলেও ২০২০ সালের জানুয়ারি হতে এপ্রিল পযন্ত ৪মাস বেতন ভাতা না দেওয়ায়র উক্ত প্রকল্পের শিক্ষক/ শিক্ষিকারা পরিবার পরিজন নিয়ে চরম মানবেতর জীপন যাপন করছে। এসকল শিক্ষকরা ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি গণশিক্ষা কার্যক্রমে ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদক, পাচার, স্বাস্থ্যবিধিসহ বিশেষ অবদান রাখছেন।

রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই, বিলাইছড়ি, রাজস্থলী, কাউখালী, লংগদু, নানিয়রচর, বরকল, রাঙ্গামাটি সদর, জুড়াছড়ি ও বাঘাইছড়িসহ ১০টি উপজেলার ৬২৯জন শিক্ষক- শিক্ষকরা এ ব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দৃষ্টি আকর্ষণ করে জরুরী হস্তেক্ষেপ কামনা করছেন।

এ ব্যাপারে রাঙ্গামাটি জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো. ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান,আমরা জানি রাঙ্গামাটি জেলার দশটি উপজেলার ৬২৯জন শিক্ষক বহু কষ্টে জীপন যাপন করছে। তবে এ সকল শিক্ষকদের উপজেলা প্রশাসন নাম লিষ্ট করে সহযোগিতা করলে শিক্ষকরা উপকৃত হত।

তিনি আরো বলেন, ২০১৯সালে ৩১ ডিসেম্বর এই প্রকল্পেটির মেয়াদ শেষ হওয়ার কারণে বেতন পাচ্ছেন না। তবে নতুন প্রকল্প চালু হলে তারা বকেয়া বেতন পাবেন। প্রকল্পটি আরো পূর্বে চালু হত তবে করোনার কারনে পিছিয়ে পড়েছে। প্রকল্পের মন্ত্রী মহাপরিচালকসহ সকলেই কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে  সামনে একটি সুসংবাদ দেওয়া যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইসলামিক ফাউন্ডেশন, গণশিক্ষা, রাঙ্গামাটি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × four =

আরও পড়ুন