রেশন কার্ড যার, খাদ্য শস্য তার: ইউএনও 

fec-image

পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ির বিভিন্ন বাঙালি গুচ্ছগ্রামে রেশন বিতরণে নানা ধরনের নয়-ছয় পুরনো গল্প। এবার সেই সব নয়-ছয়ের বিরুদ্ধে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে স্থানীয় প্রশাসন থেকে শুরু করে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। করোনা ভাইরাসকে সামনে রেখে মাটিরাঙ্গার ২৩টি বাঙালি গুচ্ছগ্রামের রেশন বিতরণে নয়-ছয় ঠেকাতে একত্র হয়েছেন স্থানীয় প্রশাসন থেকে শুরু করে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। ২মিনিট ২৩ সেকেন্ডের এক ভিডিও বার্তায় সে অবস্থানেরই জানান দিয়েছে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ।

বাঙালি গুচ্ছগ্রামের রেশন বিতরণে কোন ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি সহ্য করা হবেনা জানিয়ে, অনিয়ম বা দুর্নীতি প্রমানিত হবে হলে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি দিয়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ বলেছেন ‘রেশন কার্ড যার, খাদ্য শস্য তার’। সোমবার দুপুরের দিকে (৪ মে) ২মিনিট ২৩ সেকেন্ডের এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্ছারণ করেন।

করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের কথা বিবেচনায় রেখে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সাথে পরামর্শে খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক খাগড়াছড়ির বিভিন্ন উপজেলায় বাঙালি গুচ্ছগ্রামে এপ্রিল-মে-জুন মাসের খাদ্যশস্যের আগাম বরাদ্দ  প্রদান করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, মাটিরাঙ্গা উপজেলায় তিন মাসের জন্য (এপ্রিল-মে-জুন) ৯৪৫.৪১৩ মে.টন চাল ও ১২৯১.২৩১ মে.টন গম বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। প্রত্যেক রেশন কার্ডধারী প্রতি মাসে ৩৫.৯৫ কেজি চাল ও ৪৯.১০ কেজি গম পাবেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

কার্ডধারীদের স্ব স্ব রেশন কার্ড নিয়ে সংশ্লিষ্ট গুদাম থেকে নিজের জন্য বরাদ্দকৃত খাদ্যশস্য গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘রেশন কার্ড যার, খাদ্য শস্য তার’। মাটিরাঙ্গার ২৩টি বাঙালি গুচ্ছগ্রামে একজন করে দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্যাগ অফিসারের তত্বাবধানে আগামী ২০ মে পর্যন্ত মাটিরাঙ্গা উপজেলায় রেশন বিতরণ চলবে জানিয়ে তিনি বলেন, রেশন বিতরণে কোন ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি সহ্য করা হবেনা জানিয়ে তিনি বলেন, যেখানেই অনিয়ম বা দুর্নীতি প্রমানিত হবে সেখানেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমন প্রতিরোধে সকলকে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সবাই সুস্থ থাকুন ও নিরাপদে থাকুন। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

এ ভিডিও বার্তার বিষয়ে জানতে চাইলে মাটিরাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, এখন দেশের জনগন ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। জনগনের দুঃসময়ে আমরা কোন ধরেনর অনিয়মকে প্রশ্রয় দিতে পারিনা। আর তাই আমরা মাটিরাঙ্গার ২৩টি বাঙালি গুচ্ছগ্রামের রেশন বিতরণে নয়-ছয় ঠেকাতে ঐক্যমত হয়েছি। আর আমাদের ঐক্যমতের ম্যাসেজ মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের এ ভিডিও বার্তা।

ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ‘র  ২মিনিট  ২৩ সেকেন্ডের ভিডিও বার্তা। বিভিন্ন জনের ওয়ালে ওয়ালে ঘুরছে তার এ বার্তা। এ ভিডিও বার্তা প্রকাশিত হলে গুচ্ছগ্রামের রেশন কার্ডধারী থেকে শুরু করে সচেতন মহলের প্রশংসায় ভাসছেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ। করোনা ভাইরাসের মতো মহামারী চলাকালে তাঁর এ বার্তাকে সময়োপযোগী বলেও মন্তব্য করেছেন সচেতন মহল।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইউএনও, খাদ্য শস্য, রেশন কার্ড
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 + two =

আরও পড়ুন