হামাসকে সাহায্য করতে যা প্রয়োজন ইরান তার সবকিছুই করবে: জেনারেল কায়ানি

fec-image

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কায়ানি বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য হামাসকে যে ধরনের সাহায্য দেয়া প্রয়োজন তার সবই করবে ইরান। তিনি হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেডের কমান্ডার মোহাম্মাদ দেইফকে লেখা আর চিঠিতে এই ঘোষণা দিয়েছেন।

চিঠিতে জেনারেল কায়ানি বলেন, ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ যোদ্ধারা একটা ‘নজরকাড়া বিজয়’ এর দিকে এগিয়ে চলেছেন। তিনি এ চিঠিতে সুস্পষ্টভাবে ঘোষণা দিয়েছেন- তেহরান এবং তার মিত্ররা কোনভাবেই শত্রুর এই বর্বরতা চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দেবে না এবং গাজা ও তার বীর জনগণের ওপর ইহুদিবাদীদেরকে বিজয়ী হতে দেবে না।

জেনারেল কায়ানি আরো বলেছেন, “ঐতিহাসিক এই যুদ্ধে যা প্রয়োজন আমরা তার সবই করব।” তিনি আরো বলেন, “হামাস সবার কাছে প্রমাণ করেছে, গাজার প্রতিরোধ যোদ্ধারা এই ধরনের অভিযানের উদ্যোগ নেয়া এবং তা সফল করার ক্ষমতা রাখে; তারা একথা প্রমাণ করেছে যে, তারা এই ধরনের সংগঠন চালিয়ে নিতে পারে এবং যুদ্ধের ময়দানে তাদের সক্ষমতা রয়েছে।”

গতকাল বৃহস্পতিবার ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনা হামাস কমান্ডারের কাছে জেনারেল কায়ানির চিঠি পাঠানো সম্পর্কে খবর পরিবেশন করেছে। এর একদিন আগে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক রিপোর্টে দাবি করেছিল যে, সম্প্রতি হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরোর প্রধান ইসমাইল হানিয়া ইরান সফর করেছেন এবং সেই সময় সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী হামাস নেতাকে সুস্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, হামাস ইরানকে না জানিয়ে এই অভিযান চালিয়েছে, সেজন্য ইরান এই যুদ্ধে সরাসরি জড়িত হবে না।

গতকাল হামাসের শীর্ষ কর্মকর্তা ওসামা হামদান রয়টার্সের এই রিপোর্টকে উড়িয়ে দিয়ে বার্তা সংস্থা ইরনাকে বলেন, “তথ্য দেয়ার পরিবর্তে, এই সংবাদ সংস্থা মূল্যহীন মিথ্যা প্রকাশ করেছে। প্রতিরোধের অক্ষ হামাস এবং তার সহযোগীদের ভাবমর্যাদাকে ক্ষতিগ্রস্ত করার উদ্দেশ্যে এ ধরনের প্রতিবেদন করা হয়েছে। এটা বিশ্বাস করা অসম্ভব।”

জেনারেল কানি ফিলিস্তিনি যোদ্ধাদের অভিনন্দন জানিয়ে তার চিঠিতে বলেছেন, “আপনারা একটি নজরকাড়া বিজয় এবং গুণগত কৃতিত্ব অর্জন করেছেন যা সংঘাতের ইতিহাসে নজিরবিহীন।” তিনি মোহাম্মাদ দেইফকে সুস্পষ্ট আশ্বাস দিয়ে বলেছেন- “প্রতিরোধ ফ্রন্টে আপনার ভাইয়েরা আপনার সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে দাঁড়িয়েছেন।”

কুদস ফোর্সের প্রধান দৃঢ়ভাবে বলেছেন, “প্রতিরোধ ফ্রন্টের ইয়েরা আপনাদের সাথেই রয়েছেন এবং তারা শত্রদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে দেবেন না।” তিনি জোর দিয়ে বলেন, “অপারেশন আল-আকসা তুফানের পর ফিলিস্তিন এবং মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলটি আগের মতো থাকবে না।”

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইরান, জেনারেল কায়ানি, হামাস
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন