ইয়াবা কারবারিদের সামাজিক ভাবে বয়কট করতে হবে

fec-image

কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন (বিপিএমবার) টানা ২য় বারের মত “বিপিএম”প্রাপ্তি এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন “আইজিপি” ব্যাচ প্রাপ্তি উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিত গণসংবর্ধনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এবিএম মাসুদ হোসেন বলেছেন, ইয়াবা কারবারিদের বয়কট করতে হবে।

তাদেরকে নেতৃত্বে আনা যাবেনা। চোরের দশ দিন গৃহস্থের এক দিন। যেদিন ধরা পড়বে সে দিন আর বেঁচে থাকার সুযোগ থাকবেনা। কমিউনিটি পুলিশের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, টেকনাফে যে অবস্থা হয়েছে উখিয়াতে সেরকম কোন দৃশ্যমান ইয়াবা কারবার নেই।

শনিবার বিকাল ৪টার দিকে উখিয়ার হিজলিয়া পালং গার্ডেন প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উখিয়া উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি নুরুল হুদা।

এ বর্ণাঢ্য আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসেন বলেন, আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। যাদের কারনে উখিয়াতে এখনো ইয়াবার প্রভাব বিস্তার করতে পারেনি।

তিনি আরও রোহিঙ্গার চিত্র চোখে পড়লে মন খারাপ হয়ে যায়। রোহিঙ্গারা যেভাবে আছে সেভাবে আরো কিছুদিন থাকলে স্থানীয়দের দৃশ্যমান কষ্ট ভোগ করতে হবে। তিনি অভিভাবক মহলকে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, ১১ লক্ষ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়ে স্থানীয় ও রোহিঙ্গারা এখনো সহ অবস্থানে বাস করছেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উখিয়া সার্কেল) নিহাদ আদনান তাইযান, উখিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, জেলা কমিনিউটি পুলিশিং ফোরামের সভাপতি সাংবাদিক তোফাইল আহামদ, সাধারণ সম্পাদক সোহেল আহমদ বাহাদুর, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন নাহার বেবী, উখিয়া থানার ওসি আবুল মনসুর, রত্নাপালং ইউপি চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আদিল উদ্দিন চৌধুরী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন নাহার, জেলা কমিনিউটি পুলিশিং ফোরামে সাধাারণ সম্পাদক সোহেল আহমদ বাহাদুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মকবুল হোসেন মিথুন, যুবলীগ সেক্রেটারি ইমাম হোসেন প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইয়াবা, বয়কট
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 2 =

আরও পড়ুন