টেকনাফে ট্রাক চাপায় রোহিঙ্গা মা-ছেলে নিহত

fec-image

টেকনাফে ট্রাক চাপায় রোহিঙ্গা মা-ছেলে নিহত হয়েছে। নিহত ফাতেমা বেগম টেকনাফ পৌর সভার ১নং ওয়ার্ডের নুর আহমেদের ঘোনা নামক স্থানে শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করে আসছিল। এ ঘটনায় আরও ৩ জন আহত হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে হোয়াইক্যং লম্বাবিল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

হোয়াইক্যং হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ওসি মনিরুল ইসলাম জানান, কক্সবাজারমুখী একটি সিএনজি অটোরিকশাকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয় নাম্বারবিহীন একটি মিনি ট্রাক (ডাম্পার)। এতে আহত ৫ জনকে উখিয়ার পালংখালী এমএসএফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে মা-ছেলের মৃত্যু হয়।

নিহতরা হলেন, টেকনাফ পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকার আবুল কালামের স্ত্রী ফাতেমা (১৯) ও তার দুই মাসের ছেলে আসওয়াত ।

এ ঘটনায় দুর্ঘটনা কবলিত যানবাহন ২টি জব্দ করেছে হাইওয়ে পুলিশ। এদিকে টেকনাফ পৌর সভার ১ নং সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর কোহিনূর আকতার জানান, ” দুর্ঘটনায় নিহত ফাতেমা বেগমকে পুরাতন পল্লান পাড়ার বাসিন্দা বলা হলেও মূলত তারা রোহিঙ্গা পরিবার। ৪নং ওয়ার্ডের ইসলামাবাদ এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতো। বছর দেড়েক আগে বিবাহ সূত্রে স্বামীর ঘরে পুরাতন পল্লান পাড়ায় বসবাস করে আসছিল।”

নিহত ফাতেমার স্বামী আবুল কালামের এক বন্ধু পরিচয় গোপন করে জানান, ফাতেমা-কালাম দম্পতি রোহিঙ্গা পরিবার। বেশ কয়েক বছর ধরে এখানে ঘর তৈরি করে বসবাস করে আসছে। নিহত ফাতেমা টেকনাফ ২২নং উনছিপ্রাং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভাবির বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিল। সেখান থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনায় শিশু সন্তানসহ প্রাণ হারান। আবুল কালাম রাজমিস্ত্রী হিসেবে কাজ করে সংসার চালায় বলেও জানান ওই বন্ধু।

এদিকে নিহত মা-ছেলেকে রাতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই ইসলামাবাদ এলাকায় জানাযা শেষে দাফন করা হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

তবে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান এবিষয়ে বিস্তারিত পরে জানানো হবে বলে নিশ্চিত করেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: টেকনাফ, ট্রাক চাপা, নিহত
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen − 13 =

আরও পড়ুন