নাইক্ষ্যংছড়িতে পৃথক অভিযান: ইয়াবা, চোলাই মদসহ চারজন আটক

fec-image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে আবারও ইয়াবা ও চোলাই মদ উদ্ধার করেছে। এই ঘটনায় পৃথক অভিযানে আটক করা হয়েছে চার মাদক কারবারীকে।

বৃহস্পতিবার (১৬জুলাই) উপজেলার ঘুমধুম ও সোনাইছড়ি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় এই অভিযান চালানো হয়।

ইয়াবাসহ আটকৃতরা হলো- সোনাইছড়ি ইউনিয়নের রেজু নতুন পাড়া গ্রামের মীর আহমদের ছেলে ছৈয়দ করিম (৪০) ও ঘুমধুম জলপাইতলী গ্রামের শহর মল্লুকের ছেলে নুরুল আলম (৪৫)।

অন্যদিকে চোলাই মদসহ আটকৃতরা হলো- উখিয়া শরণার্থী ক্যাম্পে বসবাসকারী দীল মোহাম্মদের ছেলে রুহুল আমিন (১৯) ও আহমদ হোসেনের ছেলে আবু ছৈয়দ (৩০)।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘুমধুম ইউনিয়নের রেজু বড়ইতলী এলাকা হয়ে ইয়াবা পাচার হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় ঘুমধুম পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর দেলোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ।

এসময় ছৈয়দ করিম ও নুরুল আলমকে ২হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক করা হয়। রাতে তাদের বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে (মামলা নং- ০৭) দায়ের করা হয়েছে।

অন্যদিকে একই দিন সোনাইছড়ি থেকে চোলাই মদ পাচারকালে ইউনিয়নের বড়ইতলীবাজার (গুমধুম রাস্তার মাথা) নামক এলাকা থেকে ২০লিটার চোলাই মদসহ রুহুল আমিন ও আবু ছৈয়দকে আটক করা হয়।

তাদের বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে (মামলা নং- ০৮) দায়ের করা হয়েছে। এই অভিযানে নেতৃত্ব দেন সোনাইছড়ি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মির্জা জহির উদ্দিন।

অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন বলেন- মাদক নির্মুলে পুলিশের কঠোর ভূমিকা চলমান থাকবে।

উল্লেখ্য, নাইক্ষ্যংছড়ি, সোনাইছড়ি ও ঘুমধুম ইউনিয়নের মাদকপাচারকারী বেশ কয়েকটি সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে ইয়াবা ও চোলাই মদ পাচার করে আসছে। এসব সিন্ডিকেটের সদস্যরা জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ও অন্য পেশার আড়ালে মাদক কারবার করে যাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অভিযান, আটক, ইয়াবা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

1 × 4 =

আরও পড়ুন