নানিয়ারচরে বাঙালির নির্মাণাধীন বসতঘরে সন্ত্রাসী হামলা

fec-image

রাঙামাটির নানিয়ারচরে পাহাড়ি দুষ্কৃতিকারী কর্তৃক সন্ত্রাসী কায়দায় বাঙালির নির্মাণাধীন বসতঘরে হামলার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার (১৭ জুন) রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার বুড়িঘাট ইউনিয়নের শেষ সীমানা বগাছড়ি ও নানিয়ারচর ইউনিয়নের ১৭ মাইল নামক এলাকার মাঝামাঝি স্থানে মো. রবিউল ইসলামের নির্মাণাধীন আধা পাকা ঘরটি দুষ্কৃতকারীরা সন্ত্রাসী কায়দায় ভেঙ্গে পালিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী রবিউল জানায়, সম্প্রতি আমার রেকর্ডিয় জায়গায় বসতঘর নির্মাণ শুরু করলে রোববার (১৯ জুন) রাতে কে বা কারা ঘরের পিলারগুলো হেলিয়ে দিয়ে যায়। পরদিন সকালে এটি দেখে আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে বিষয়টি অবহিত করি। এদিন ২নং নানিয়ারচর সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পরে ১৭ মাইল এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে আলোচনা করলে আমাকে ঘর নির্মাণে অনুমতি দেন। কিন্তু তারপরও পাহাড়ি দুষ্কৃতিকারীরা গত রাতে সন্ত্রাসী কায়দায় এবং অমানবিকভাবে আমার বসতঘরটি ভেঙ্গে দিয়ে যায়। এতে আমি ও আমার পরিবার পথে বসার উপক্রম। আমি প্রশাসনের নিকট সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক বাসিন্দা জানায়, গত রাতে শতাধিক লোকজন একত্রিত হয়ে এই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়েছে। দূর পাহাড় থেকে আমরা টিন কোপানো এবং হ্যামার দিয়ে ঘরের পাকা পিলারগুলো ভেঙ্গে ফেলার আওয়াজ শুনতে পেয়েছি। গত বছর এই জায়গাটির পাশেই অন্য এক বাঙালির নবনির্মিত বসতঘরে পাহাড়িরা আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে নানিয়ারচর উপজেলার ২নং সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বাপ্পি চাকমা জানান, ঘরটির নির্মাণকাজ শুরু করলে কে বা কারা ঘরের পাকা খুটিগুলো হেলিয়ে দেওয়ার বিষয়ে জানতে পেরেছি। গত সোমবার এবিষয়ে আমি এলাকাবাসীর সাথে কথা বলি এবং জায়গার মালিকের যেহেতু কাগজপত্র ঠিক আছে তাই তাকে ঘর নির্মাণ করতে বলি। পাশাপাশি অন্য কারো জায়গাটির মালিকানা থাকলে তাকে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ বা আমার সাথে যোগাযোগের কথা বলি। জায়গাটির দাবি নিয়ে কেউ আমার কাছে আসেনি। গত রাতে নির্মাণাধীন পুরো ঘরটি দুষ্কৃতিকারীরা ভেঙ্গে দিয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রশাসন এখন আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

জানতে চাইলে এই বিষয়ে নানিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ সুজন হালদার বলেন, ঘটনার খবর জানতে পেরে আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছি। ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: নানিয়ারচর, হামলা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen − 2 =

আরও পড়ুন