বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত পাহারায় মিজোরামে রেজিমেন্ট গঠনের দাবি

fec-image

বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের আন্তর্জাতিক সীমান্ত পাহারা দেয়ার জন্য ভারতীয় সেনাবাহিনীর মধ্যে বা আলাদা প্যারামিলিটারি হিসেবে মিজো রেজিমেন্ট নামে নতুন বাহিনী গঠনের দাবি জানিয়েছেন মিজোরাম  রাজ্যসভা এমপি কে বনলালবিনা। এই রেজিমেন্ট স্থানীয় তরুণদের বেকারত্বই শুধু লাঘব করবে না জাতীয় নিরাপত্তাও জোরদার করবে বলে জানান তিনি।

মিজোরামের একমাত্র এই এমপি প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে দেখা করে তাকে মিজো রেজিমেন্ট প্রতিষ্ঠার জন্য প্রাথমিক উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান কে বনলালবিনা । ব্রিটিশ প্রতিরোধ আন্দোলনে মিজোদের সংগ্রাম সবার জানা। এমপি বলেন, মিজো তরুণদের মধ্যে জন্ম থেকে লড়াইয়ের যে স্পৃহা ও নিরাপত্তা বাহিনীতে যোগদানের যে অদম্য ইচ্ছা তা মিজো রেজিমেন্টকে দেশের সেরা রেজিমেন্ট বা প্যারামিলিটারি বাহিনীতে পরিণত করতে পারে।

মিয়ানমার ও বাংলাদেশের সঙ্গে মিজোরামের যথাক্রমে ৪০৪ কি.মি. ও ৩১৮ কি.মি. সীমান্ত রয়েছে। বর্তমানে মিয়ানমারের সীমান্ত পাহারা দেয় আসাম রাইফেলস ও বাংলাদেশ সীমান্ত বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ)। তারা চোরাচালান তৎপরতাও সামাল দিচ্ছে। মিয়ানমার থেকে প্রায়ই হেরোইন চোরাচালান হয়ে মিজোরামে আসে।

গত বছর সিএএ নিয়ে প্রতিবাদের সময় ইউনিয়ন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ মিজোরামের এনজিওগুলোকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে মিজো তরুণদের নিয়ে কেন্দ্র একটি সিআরপিএফ ব্যাটালিয়ন গঠন করবে।

সূত্র: সাউথএশিয়ানমনিটর

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − eight =

আরও পড়ুন