শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে: এমপি দীপংকর

fec-image

শত বাঁধার মুখেও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রাঙামাটিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাকাণ্ড বাস্তবায়নে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন রাঙামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার

তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে থামিয়ে দিতে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হলেও এলাকার মানুষের আকাঙ্খার ভিত্তিতে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলমান থাকবে। তিনি স্কুলের শিক্ষকদের সঠিক সময়ে স্কুলে উপস্থিত থেকে কোমলমতি শিশু কিশোরদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে তোলার আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার(২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সভাকক্ষে জেলার মাধ্যমিক, মাদ্রাসা ও কলেজ স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সততা স্টোর চালু করতে জেলা পরিষদের আর্থিক অনুদান এবং জেনারেশন ব্রেক-থ্রু প্রকল্পের আওতায় মাধ্যমিক ও দাখিল স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ল্যাপটপ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর ঢাকার (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) উপ-পরিচালক আনিকা রাইসা চৌধুরী, জেনারেশন ব্রেক-থ্রু প্রকল্প পর্যায়-২ মাধ্যমিক উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক দিল আফরোজা বিনতে আছির, জেলা পরিষদ সদস্য সাধন মনি চাকমা, পরিষদ সদস্য ত্রিদীব কান্তি দাশ, পরিষদ সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, পরিষদ সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া, পরিষদ সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা উত্তম খীসা।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা বলেন, শিক্ষকরা হচ্ছে জ্ঞানের ভাণ্ডার। তাই শিক্ষার্থীদের সেই ভাণ্ডারের আলোয় আলোকিত করে তুলতে হবে। তিনি বলেন, শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের যেভাবে গড়ে তুলবে শিক্ষার্থীরা সেভাবেই গড়ে উঠবে। তাই তাদের মানসম্মত শিক্ষা প্রদান করে মানুষের মতো মানুষ করে গড়তে হবে।

তিনি আরও বলেন, স্বল্প পরিসরে হলেও শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে এই সততা স্টোর খোলা হচ্ছে। এটির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা যদি তাদের শিক্ষা লাভের ক্ষেত্রে উপকৃত হয় তাহলে এটি সফল হবে। তিনি সততা স্টোরের উন্নয়নে শিক্ষকদের পরিষদ হতে সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।

পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যায়নরত কিশোরীদের স্বাস্থ্য সচেতনতার লক্ষ্যে কিশোরী কর্ণারের জন্য শিক্ষা অধিদপ্তর হতে রাঙামাটির ৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের হাতে ল্যাপটপ ও সততা ষ্টোর চালুর জন্য জেলা পরিষদ হতে প্রতিটি স্কুলে ১৫ হাজার টাকা করে মোট ৯০টি স্কুলে ১৩লক্ষ ৫০হাজার টাকার আর্থিক অনুদান প্রদান করেন অতিথিরা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 5 =

আরও পড়ুন