সন্ত্রাসী হামলায় সিভিল সার্জন কার্যালয়ের অফিস সহকারী আহত

fec-image

সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে কক্সবাজার সিভিল সার্জন কার্যালয়ের অফিস সহকারী জামাল উদ্দিন। এ সময় তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে আহত হয়েছে তার শিশু পুত্র সহ আরও ৩ জন। বর্তমানে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে কাতরাচ্ছে জামাল উদ্দিন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কক্সবাজার সিভিল সার্জন কার্যালয়ের অফিস সহকারী জামাল উদ্দিনকে ব্যাপক মারধর করে আহত করা হয়েছে। এতে তার মাথা, বুকে ও হাতে প্রচণ্ড আঘাত পেয়ে ১৫ থেকে ২০টি সেলাই দিতে হয়েছে। এছাড়া হাতে বুকেসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে দা, কিরিচ ও লাটিসোটা নিয়ে আঘাত করেছে এসব চিহ্নিত ইয়াবা কারবারী সন্ত্রাসীরা। শনিবার রাত ৯টায় পূর্ব কলাতলীর ঝিরঝিরিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জামাল উদ্দিন বলেন, সম্পূর্ন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এবং পাওনা টাকা চাওয়ায় প্রথমে আমার ছেলেকে মারধরে করে পরে আমি প্রতিবাদ করতে গেলে আমাকেও মারধর করে। তিনি আরও জানান-স্থানীয় চিহ্নিত সন্ত্রাসী আবদুল জব্বারের ছেলে জালাল আহাম্মদ (ইয়াবা ব্যবসায়ি), মো. জাফর, বশির আহাম্মদ, ছৈয়দ আলম, মনু আহাম্মদ ও রমজান আলী। এছাড়া জালাল আহাম্মদের ছেলে ইয়াছিন মিয়া এবং মোহাম্মদ নুর যারা ছিনতাই কারী হিসাবে এলাকায় পরিচিত। কিছুদিন আগেও ছিনতাইয়ের অভিযোগে তাদের থানায় আনা হয়েছিল।

এদিকে সন্ত্রাসীদের হামলায় আরও আহত হয়েছে জামাল উদ্দিনের ছেলে কলাতলি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর ছাত্র আরফাত মিয়া, স্ত্রী আম্বিয়া আকতার এবং ব্যবসায়ি মো. হারুন। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে সিভিল সার্জন অফিসের সহকারী জামাল উদ্দিনকে ব্যাপক মারধরের ফলে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে পরে লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। গুরুতর আহত জামাল উদ্দিনের বড় ভাই মো. হারুন বাদি হয়ে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) শাহজাহান কবির জানান, এ ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আহত
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + 13 =

আরও পড়ুন