আরাকান আর্মিতে যোগ দেওয়া মিয়ানমারের রাখাইন সৈনিকের ভিডিও প্রকাশ

fec-image

মিয়ানমার সেনাবাহিনী থেকে বিদায় নিয়ে বিদ্রোহী সামরিক বাহিনীতে যোগ দেওয়া এক জাতিগত রাখাইন সৈনিকের ভিডিও প্রকাশ করেছে আরাকান আর্মি। ভিডিওতে তিনি অভিযোগ করেন, সরকারি বাহিনী নিয়মিতভাবে সংখ্যালঘু সৈন্যদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করে এবং রাখাইনের বেসামরিক লোকদের নির্যাতন করে।

সাত মিনিটেরও বেশি দীর্ঘ এই ভিডিওটি ১০ অক্টোবর প্রকাশিত হয়।

ভিডিওটিতে ব্যক্তিটি নিজেকে কর্পোরাল অং নাইং হিসাবে পরিচয় দেন। তিনি বলেন, তিনি মিয়ানমার সেনাবাহিনীতে ২৭ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে আরাকান বাহিনীতে যোগ দেয়ার আগ মুহুর্তে তাকে অধিনায়কের পদোন্নতি থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছিলো।

ভিডিওতে অং নাইং বলেন যে, রাখাইন রাজ্যে সেনা তৎপরতার মাঝে যখন তিনি একটি গ্রামে তার ভাইয়ের সাথে দেখা করতে যান তখন তার বিরুদ্ধে একজন আরাকান সেনার সাথে দেখা করার অভিযোগ ওঠে।

মিয়ানমারের প্রাক্তন এই কর্পোরাল জানান, তাঁর ইউনিটের ক্যাপ্টেন তাকে লাঞ্ছিত করেন, মুখে থাপ্পড় মারেন এবং তাকে মারধর করেন। তাকে পদোন্নতিও দেওয়া হয়নি।

প্রাক্তন সৈনিকের অভিযোগের বিষয়ে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ওয়েস্টার্ন কমান্ডের কমান্ডার কর্নেল উইন জাও ওও জাতিগত সংখ্যালঘু সৈন্যদের বিরুদ্ধে বৈষম্যের কথা অস্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের অধ:স্তন সৈন্যদের বিরুদ্ধে নির্যাতন বা বৈষম্যের মতো কিছু করি না। আমরা তাদের সাথে সমান আচরণ করি। তবে যদি তারা বারবার ঘোষিত বিধি ও আদেশ মেনে চলতে ব্যর্থ হয় তবে আমাদের বিদ্যমান আইন অনুযায়ী তাদের শাস্তি পেতে হয়। যদিও আমরা কখনও মারধর এবং বৈষম্যমূলক আচরণের অনুমতি দেই না।

অং নাইং আরও বলেন, একটি জাতিগত রাখাইন হিসাবে তিনি দু:খ পেয়েছিলেন যে সামরিক সৈন্যরা অধিকার খর্ব করে আরাকান আর্মির কার্যকলাপ সম্পর্কে তথ্য পাওয়ার চেষ্টায় প্রতিদিনই রাখাইন বেসামরিক লোকদের নির্যাতন করত।

তিনি বলেন, “সামরিক বাহিনী জাতিগত রাখাইনদের মুখোমুখি হয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। যদি তারা কাউকে সন্দেহ করে তবে তারা তাকে বেঁধে মারে। রাখাইন গ্রামে ঢুকতেই আমি তাদের স্থানীয় গ্রামবাসীদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের সময় সব ধরণের নির্যাতন করতে দেখেছি।”

তবে কর্নেল উইন জাও ওও ভিডিওটিকে এবং অং নাইংয়ের মন্তব্যগুলিকে “অপপ্রচার” বলে অভিহিত করেন। তিনি বলেন, “এর একটিই যুক্তিযুক্ত কারণ হচ্ছে তারা সেনাবাহিনীর মর্যাদা নষ্ট করতে চায়। জাতিগত বিদ্বেষকে উস্কে দেওয়ার জন্য এটা অপপ্রচার।

অং নাইং সামরিক বাহিনীর কর্মরত রাখাইনদের পদ ছেড়ে সামরিক বাহিনীর অস্ত্র নিয়ে আরাকান আর্মিতে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান।

একইভাবে ২ আগস্ট আরাকান আর্মির মেজর অং মিন্ট সোয়ের একটি ভিডিও প্রকাশ করে। তিনি জাতিগত রাখাইন। যিনি ১৭ বছর ধরে সামরিক বাহিনীতে দায়িত্ব পালন করেন ও পরে আরাকান আর্মিতে যুক্ত হন।

সূত্র: রেডিও ফ্রি এশিয়া

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আরাকান আর্মি, মিয়ানমার, সেনাবাহিনী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + 5 =

আরও পড়ুন