জাতীয় শোক দিবসে প্রধানমন্ত্রী‘র উপহার পেলেন মানিকছড়ি’র ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী পরিবার

fec-image

বিনম্র  শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় মানিকছড়িতে পালিত হয়েছে জাতীয় শোক দিবস। দিবসের অনুষ্ঠানমালা শেষে প্রধানমন্ত্রী‘র বিশেষ উপহার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর অধীনে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী পরিবারের জন্য আবাসন/গৃহ নির্মাণ প্রকল্পে উপজেলার বারো পরিবারে নির্মিত গৃহের চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী দেশব্যাপি আশ্রয়হীন/ভূমিহীন পরিবারে আশ্রয়ণ প্রকল্প-১ এরপর ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে মানিকছড়ি উপজেলার চার ইউনিয়নে মোট বারোটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী দরিদ্র পরিবারে গড়ে ৫ লক্ষ ৫৩ হাজার ৯২ টাকা ব্যয়ে মান সম্মত ও আধুনিক ডিজাইনে বাসগৃহ নির্মাণ হয়।

ফলে জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতা মরহুম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকীতে উপজেলার সুবিধাভোগী ১২ পরিবারকে নির্মিত গৃহের চাবি হস্তান্তর করেন অনুষ্ঠানে আগত অতিথিরা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার তামান্না মাহমুদ এর সভাপতিত্বে এবং প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জয়নাল আবেদীন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার(ভূমি) রিফাত আসমা, অফিসার ইনচার্জ আমির হোসেন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. সফিউল আলম চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক, মো. আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. কামাল উদ্দীনসহ সকল দপ্তর প্রধান, সাংবাদিক প্রমূখ।

সভায় তিনটহরী ইউনিয়নের মংরে মারমার হাতে গৃহের চাবি আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেন অতিথিরা।

এ সময় মংরে মারমা বলেন, জীবনে কোন দিন ভাবিনি পাকা ভবন বানাতে পারবো। যদিও নিজে পারিনি ঠিকই, কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আমার না পারা কাজটি করে দিয়ে অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

আমরা মনপ্রাণ খুলে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার জন্য আর্শিবাদ করি। সে অনন্তকাল বেঁচে থাকুক।

উপজেলা চার ইউনিয়নে তিনটি প্যাকেজে বারো পরিবারের জন্য সরকার প্রতি প্যাকেজে ১৬ লক্ষ ৫৩ হাজার ২ শত ৭৬ টাকা ব্যয়ে ঘর নির্মাণ করছে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর প্রকল্প তৃণমূলে বাস্তবায়ন করছে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন(পিআইও) অফিস ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven − 2 =

আরও পড়ুন