চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় নাইক্ষ্যংছড়ির হাশেম অস্ত্রসহ গ্রেফতার

fec-image

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার কলাউজানে এক প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় লোহাগড়া থানা পুলিশের অভিযানে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীর নুরুল হাশেম প্রকাশ কাশেম (৩০) কে অস্ত্র, গুলি সহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সে বাইশারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড তুফান আলী পাড়া এলাকার মৃত শফিকুর রহমান প্রকাশ শফি হাইতানের ছেলে। পেশায় একজন ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল চালক। সোমবার (২১ জুন) সকালে চকরিয়ার বরইতলী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে লোহাগাড়া পুলিশের একটি টিম। আটকের পর তার স্বীকারোক্তিতে বাড়ির পাশ থেকে ৪টি দেশীয় তৈরি অস্ত্র ও ১৩ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাকারিয়া রহমান জিকু ও লোহাগাড়া থানার ওসি মো. জাকের হোসাইন মাহমুদের নেতৃত্বে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই পার্থ সারথী হাওলার, এসআই ভক্ত চন্দ্র দত্ত সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে এ অভিযান পরিচালনা করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেপ্তার নুরুল হাশেম পেশায় একজন ড্রাইভার। সাড়ে ৪ হাজার টাকার বিনিময়ে চকরিয়া থেকে লোহাগাড়ায় ডাকাত এনে ডাকাতির ঘটনা ঘটাতো। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে তিনি এসব তথ্য স্বীকার করেছে।

লোহাগাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাকের হোসাইন মাহমুদ গণমাধ্যমে জানায়, কলাউজানে ডাকাতির ঘটনায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অভিযান চালিয়ে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরে তার স্বীকারোক্তিতে বাড়ির পাশ থেকে ৪টি দেশিয় তৈরি অস্ত্র ও ১৩ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

এদিকে নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলার ২নং বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলম কোম্পানী জানান, তার বিরুদ্ধে এলাকায় হত্যাকাণ্ডসহ রাবার চুরির অভিযোগ রয়েছে। জেলও খেটেছে অনেকবার। অপরাধীদের আইনগত শাস্তি হওয়ার প্রয়োজন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১৯ জুন পশ্চিম কলাউজানের হাসান আলী মিয়াজান পাড়ায় সৌদি প্রবাসী আব্দুস শুক্কুরের বাড়িতে হানা দেয় ডাকাতদল। ওই প্রবাসীর বাড়িতে কেউ না থাকায় তারা হামলে পড়ে ভাড়াটিয়া আগ্রাবাদ সিএমবি কলোনী মসজিদের পেশ ইমাম আবুল কাশেমের বাসায়। সিঁড়ি ঘরের উপরের টিনের চালা কেটে বাড়িতে প্রবেশ করে সবাইকে এক রুমে আটকে রাখে। এক পর্যায়ে তার ছেলে হামেদ হাসান ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে এবং মোবাইল ফোনে বিভিন্ন লোকজনকে জানায়। এতে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ডাকাতদল ফাঁকা গুলি ছাড়তে ছাড়তে পালিয়ে যায়। যদিও ততক্ষণে নগদ ৬৮ হাজার টাকা ও ৪ ভরি স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করে নেয় তারা। পরে পুলিশের দুটি টিম এসে ঘটনাস্থল থেকে দেশিয় তৈরি ছুরি, গ্রিল কাটার কাঁচি, খুন্তি, বল্লম উদ্ধার করে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অস্ত্র, গ্রেফতার, চট্টগ্রাম
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six − 2 =

আরও পড়ুন