চিপিং এন্ড হ্যান্ডলিং প্লান্ট বন্ধ; কোটি টাকার যন্ত্রাশং পানির নিচে

fec-image

চিপিং এন্ড হ্যান্ডলিং প্লান্ট কাপ্তাই কর্ণফুলী পেপার মিলস্ লিঃ(কেপিএম)এর কোটি টাকার যন্ত্রাশং পানির নিচে তলিয়ে গেছে। জানা যায়, প্রশাসনের অবহেলা ,অযত্ন,গাফিলতি ও অনিয়মের ফলে রাতারাতি কোটি টাকার যন্ত্রাশং পানির নিচে তলিয়ে গেছে। যার ফলে কেপিএমের আর একটি উৎপাদন শাখা প্রধান চিপিং এন্ড হ্যান্ডলিং প্লান্টটিও অবহেলার কারণে বন্ধ হয়ে গেল।

(রোববার) গভীর রাতে প্রবল বর্ষণে ফিটিং সেকশন ও প্লান্ট বোর্ডে পানি ডুকে চিপিং এন্ড প্লান্ট মেশিন পানির নিচে তলিয়ে যায়। জানাযায় ফিটিং সেকশন,প্লান্ট বোর্ডের ৫টি উন্নতমানের মেশিন, প্লান্ট মটর ৬টি এবং সেকশন ৩টি যন্ত্রাশং রাতা-রাতি পানির নিচে তলিয়ে যায়।

এতে কোটি টাকার যন্ত্রাশং ক্ষতি হয়েছে বলে শ্রমিক/কর্মচারী মত প্রকাশ করে। একটি দায়িত্ব প্রাপ্ত সুত্রে জানা যায়, উধর্বতন কর্মকর্তাকে বারবার উক্ত মেশিনের সমস্যার ব্যাপারে আগাম অবগত করা হলেও তিনি তা কর্ণপাত করেনি। দায়িত্ব অবহেলার কারনে উক্ত ঘটনাটি ঘটে মিলের কোটি টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে কর্মচারীরা মত প্রকাশ করে।

সোমবার(১৫ জুলাই) মেশিনারি পানিতে ডুবে যাওয়ার সংবাদটি কাপ্তাই চিপার হাউজ দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মবকর্তা উধর্বতন কর্তৃপক্ষকে জানালে তিনি তা সরজমিনে দেখতে আসে। এবং ডুবে যাওয়া কোটি টাকার যন্ত্রাশং পানির নিচ থেকে উদ্বারের চেস্টা করে। কয়েক ঘন্টা চেষ্টা করেও উদ্বার করতে ব্যার্থ হয়ে তিনি ফিরে যায়।

এদিকে চন্দ্রঘোনা-কাপ্তাই চিপার হাউজ দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-প্রধান রাসায়নবিধ রেজা শরিফ কামালের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি গত রোববার (১৪ জুলাই) ও কাপ্তাই চিপার হাউজে মেশিনটি ভাল দেখেছেন বলে জানান। তবে রাতে বর্ষণের ফলে প্লান্ট বোর্ডে পানি ডুকে রাতা-রাতি মেশিনারি ডুবে যাওয়ার সত্যতা স্বীকার করেন।

তিনি বলেন, পানির নিচ থেকে উঠানোর পর এ মেশিন গুলো মেরামত করলে ঠিক হবে বলে উল্লেখ করেন। এক প্রশ্নের জবাবে ক্ষতির পরিমান জানতে চাইলে তিনি বলেন, ক্ষতির পরিমান প্রায় দশ হাজার টাকা হবে বলে মন্তব্য করেন। তবে কবে নাগাদ পানির নিচ হতে এ মেশিন উদ্বার বা মেরামত করা হবে কোন কিছুই না বলে চেয়ার থেকে উঠে যান। এ মেশিন পানি হতে উঠানো বা মেরামত না করা পযন্ত চিপিং কার্যক্রম উৎপাদন একেবারে বন্ধ রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কাপ্তাই, চিপিং এন্ড হ্যান্ডলিং প্লান্ট
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight + five =

আরও পড়ুন