নাইক্ষ্যংছড়িতে খালের পানিতে ডুবে উপজাতি মহিলার মৃত্যু

fec-image

পার্বত্য বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে ছড়া খালের পানিতে ডুবে উপজাতী দুই সন্তানের জননীর করুণ মৃত্যু হয়েছে। তার নাম মাচিং চাক সে ঐ এলাকার ক্রাথোয়াই চাকের স্ত্রী বলে জানা গেছে।

ঘটনাস্থল নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের নতুন চাক পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় উছালা চাক জানান, বুধবার (১০ জুলাই) সকাল অনুমানিক ১০টার দিকে মাচিং চাক জীবিকার তাগিতে পাহাড়ে কালার থুর ও বাঁশকুরল (বাঁশের গোড়া) সংগ্রহণ করতে যায়।

ঐ দিন মাচিং চাক আর বাড়িতে ফিরে না আসায় সন্ধা থেকে তার পরিবার অনেক স্থানে খুঁজাখুঁজি করেন। বৃহস্পতিবার (১১জুলাই) বেলা ১২ টায় নতুন চাক পাড়াস্থ পাহাড়ি ছড়া খালে স্থানীয়রা তার মৃতদেহ পানিতে বাসতে দেখে প্রতিবেশীদের খবর দেয়। খবর পেয়ে প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের অবগত করে মৃতদেহটি উদ্ধার করেন গ্রামবাসী।

স্থানীদের মতে ছড়া খালটিতে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে পাহাড়ি ঢলে প্রচুর পানি এবং স্রোত ছিল। এদিন মাচিং চাক কলার থুর সংগ্রহ করতে গিয়ে উচু পাহাড় থেকে নিচে ছড়া খালে পড়ে গেলে সে আর উঠতে না পারায় এ ঘটনা ঘটতে পারে।

এ খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে ছুটে যান নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোঃ শফিউলাহ, ইউএনও সাদিয়া আফরিন কচি, ইউপি চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরীসহ অনকে।

সন্ধায় তার মৃতদেহ স্থানীয় শসানে সৎকার করেন। এদিকে মা হারানো দুই শিশু সন্তানের কান্নায় আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। এদিকে মাচিং চাকের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

স্থানীয় চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর ঊসশিং এর পক্ষ হয়ে মরহুমের পরিবারকে ৫ হাজার টাকা অনুদান দেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উপজাতি, নাইক্ষ্যংছড়িতে, মহিলার মৃত্যু
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + six =

আরও পড়ুন