বান্দরবানে আওয়ামী লীগ নেতা হত্যায় প্রতিবাদ সভা

fec-image

বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতার মৃত্যুর ঘটনায় প্রতিবাদ সভা করেছে জেলা আওয়ামী লীগ।

রবিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে এই প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা আব্দুর রহিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তারা এই হত্যাকান্ডের জন্য পাহাড়ের আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জেএসএসকে দায়ি করেন।

এসময় বক্তারা বলেন- পাহাড়ে পার্বত্যমন্ত্রীর ধারাবাহিক উন্নয়নে ঈর্ষান্বিত হয়ে জেএসএস একের পর এক আওয়ামী লীগ নেতাদের হত্যাকান্ড চালাচ্ছে।চাঁদাবাজির মাধ্যমে বান্দরবানে সন্তুু লারমার কর্তৃত্ব চালানোর খায়েস পূরণ হবেনা।

প্রশাসন ব্যর্থ হলে আগামীতে জেএসএস সন্ত্রাসীদের আওয়ামী লীগ রুখে দাঁড়ানোর হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন নেতৃবৃন্দ।

প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মো: ইসলাম বেবী, আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য কাজল কান্তি দাশ, জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষী পদ দাশ, মোজাম্মেল হক বাহাদুর, আওয়ামী লীগ নেতা ক্যাসাংপ্রু, অজিত দাশপ্রমুখ।

উল্লেখ্য,শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বান্দরবান সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের জামছড়ি এলাকায় সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে নিহত হন ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি বাচোনু মারমা (৫৩)।

এই ঘটনায় আহত হয়েছেন সাবেক মেম্বার উচ থোয়াই (৬৫), যুবলীগ নেতা মংক্যাচিং মারমা (২৫), যুবলীগ নেতা হ্লামংচিং (৩০) ক্যাপোমং (৪৫) এবং প্রতিবন্ধী আধাসী (২৬)।

এদিকে বর্বরোচিত এই হত্যাকান্ডের জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং।

বিবৃতিতে তিনি বলেন- পার্বত্য চট্টগ্রামের চলমান শান্তি ও উন্নয়ন প্রক্রিয়াকে ব্যহত করার জন্য শান্তি ও উন্নয়ন বিরোধী অপশক্তি এই ঘটনায় জড়িত। পার্বত্য এলাকায়উন্নয়ন ও শান্তিশৃঙ্খলা চলমান রাখার স্বার্থে অবিলম্বে এসব সন্ত্রাসীদের চিহ্নিত ও আইনের আওতায় আনার আহ্বান জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আওয়ামী লীগ, প্রতিবাদ সভা, বান্দরবান
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

17 + 2 =

আরও পড়ুন