রাঙামাটিতে বিদেশী অস্ত্রসহ পিসিপি নেতা কুনেন্টু গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি/ রাঙামাটি প্রতিনিধি:

রাঙামাটি সদরে গোয়েন্দা তথ্যর ভিত্তিতে ইউপিডিএফ সমর্থিত রাঙামাটি পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি কুনেন্টু  চাকমাকে (২৩) বিদেশী অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে যৌথবাহিনী। শনিবার (২ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টার দিকে যৌথবাহিনীর পক্ষ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়।

যৌথবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়- শনিবার দুপুরে রাঙামাটি সদরের কুতুকছড়ি এলাকায় পিসিপি নেতা কুনেন্টু, ইউপিডিএফ’র চীফ কালেক্টর রবি চন্দ্র চাকমা ওরফে অর্কিড চাকমা ওরফে অর্ণব বাবু, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের আহ্বায়ক ধর্মসিংহ চাকমা, ইউপিডিএফ কাউখালী উপজেলা শাখার সংগঠক সম্রাট চাকমা, সংগঠনটির সশস্ত্র গ্রুপের সদস্য রণজিৎ চাকমাসহ আরও কয়েকজন মিলে চাঁদা বন্টন সংক্রান্ত গোপন বৈঠক করছেন এমন গোয়েন্দা তথ্য’র ভিত্তিতে ওই এলাকায় যৌথবাহিনী অভিযান চালিয়ে পিসিপি নেতা কুনেন্টুকে গ্রেফতার করতে পারলেও বাকিরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, ৫রাউন্ড এ্যামুনেশন, চাঁদা আদায়ের ৪লাখ ৫হাজার  ৮০০ টাকা, ৪টি মোবাইল এবং ইউপিডিএফ’র চাঁদা আদায়ের রশিদ উদ্ধার করা হয়।

পিসিপি নেতা কুনেন্টু নানিয়ারচর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান  অ্যাড. শক্তিমান চাকমা হত্যাকাণ্ডের অন্যতম হোতা বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

আটককৃত কুনেন্টু চাকমা চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করে বলেন, তিনি একজন ছাত্র। ইউপিডিএফ (প্রসীত) দলের নির্দেশনা অনুযায়ী বিভিন্ন সময় রাঙ্গামাটি জেলার জেলা প্রশাসক, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের হুমকি প্রদান করে। এছাড়াও পার্বত্য এলাকার বিচ্ছিন্ন ঘটনাগুলোর সংবাদ প্রকাশের কারণে ইউপিডিএফ (প্রসীত) দলের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের প্রাণের নাশের হুমকিও প্রদান করেছে কুনেন্টু চাকমা। এমনকি তার উপস্থিতিতে নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট শক্তিমান চাকমার হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এই পরিকল্পনায় জেএসএস(সন্তু) সমর্থিত সশস্ত্র দলের কয়েকজন সদস্যও উপস্থিত ছিল বলেও তিনি জানান।

তিনি আরও বলেন, পার্বত্য এলাকায় বসবাসকারীদের জুম্ম জনগোষ্ঠী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার নামে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আন্দোলনের কথা বলে তার মত কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের দলে যোগদানের জন্য নিয়মিত হুমকি প্রদান করে ইউপিডিএফ (প্রসীত) দল। দলে যোগদান না করলে প্রাণ নাশের হুমকি প্রদান করে এবং তার মত অনেক ছাত্র-ছাত্রীদের দিয়ে চাঁদা আদায়সহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করানো হলো ইউপিডিএফ (প্রসীত) দলে সন্ত্রাসীদের কাজ। তিনি জুম্ম জনগোষ্ঠী পাহাড়ি ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে করে বলছেন, তার মত কেউ এই ভুল না করে স্বাভাবিক জীবনযাপন করার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।

এ বিষয়ে রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানার এস আই মো. আনোয়ার এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃত কুনেন্টু চাকমার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও অস্ত্র আইনের মামলা দায়ের করা হবে। তিসি আরও বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলো তাদের সংগঠনের নামে পার্বত্যাঞ্চলে খুন, গুম ও চাঁদাবাজির মাধ্যমে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে রাজনীতির আড়ালে পার্বত্য এলাকার মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে। এছাড়াও ফেসবুকে বিভিন্ন আইডি ব্যবহার করে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সদস্যরা রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক বিভিন্ন কার্যক্রম ও স্থানীয় প্রশাসনসহ বিভিন্ন উল্লেখ্যযোগ্য ব্যক্তিবর্গকে হুমকি প্রদান করছে। এদের হাত থেকে পাহাড়ি -বাঙ্গালি কেউ রেহায় পায় না। পার্বত্যাঞ্চলে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে যৌথবাহিনীর এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অস্ত্র, গ্রেফতার, পিসিপি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two + twelve =

আরও পড়ুন