সেন্টমার্টিন বাঁচানোর দাবিতে মানববন্ধন

fec-image

অপসিদ্ধান্ত বাতিল করে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর ও ব্যবসায়ীদের সাথে আলোচনা করে যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়ে দ্বীপ ও পর্যটন রক্ষার দাবি

“সেন্টমার্টিনে প্রতিদিন ৯০০ জন পর্যটক ভ্রমণ করতে পারবেন” এমন আদেশ পরিবেশ অধিদপ্তরের মনগড়া সিদ্ধান্ত দাবি করে এর প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে
দ্বীপবাসী।
শনিবার (১৮ জুন) বিকেলে সেন্টমার্টিনের প্রধান সড়কে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

এতে বক্তব্য রাখেন ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান আক্তার কামাল, ইউপি সদস্য আল নোমান, স্হানীয় উদ্যোক্তা আবছার উদ্দিন, মাহাবুব, আলী হায়দার, হাবিব উল্লাহ, জিয়াউল হক জিয়া প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, সেন্টমার্টিন এই দেশের পর্যটনের তীর্থস্থান। সেই তীর্থস্থান নিয়ে পর্যটন সীমিত করার নামে পর্যটনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন নিয়ে চলছে গভীর ষড়যন্ত্র।

পর্যটন অবিরত থাকলে কখনো পরিবেশ নষ্ট হয়না বরং পরিবেশ রক্ষা হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। সরকার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করার মাধ্যমে সেন্টমার্টিনকে বিশ্ব মানের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব। নিজ ভূখণ্ডে বিশাল অঙ্কের ফিঁ দিয়ে পর্যটক ঢুকানোর পরিকল্পনা সংবিধান বিরোধী হঠকারী সিদ্ধান্ত বলে মতামত ব্যাক্ত করেন বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

স্থানীয় জনগোষ্ঠীর মতামত ছাড়া এমন হঠকারী সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে ত্রিশ হাজার পরিবার ও শত শত কোটি টাকা বিনিয়োগ নষ্ট হয়ে ব্যবসায়ীরা দেউলিয়া হয়ে যাবে বলে জানানা তারা।

এসময় এমন অপসিদ্ধান্ত বাতিল করে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর ও ব্যবসায়ীদের সাথে আলোচনা করে যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়ে দ্বীপ ও পর্যটন রক্ষারও দাবি জানান বক্তারা।
এ কর্মসূচিতে সেন্টমার্টিন সার্ভিস বোট মালিক সমিতি, হোটেল মালিক সমিতি, বাজার সমিতি, ভ্যান মালিক সমিতি, সেন্টমার্টিনের হোটোল মোটেল ও রিসোর্ট ব্যবসায়ীর ব্যানারসহ স্হানীয় জনগোষ্ঠী অংশ নেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: মানববন্ধন, সেন্টমার্টিন
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 − five =

আরও পড়ুন