রামুতে এসাইনমেন্ট নিয়ে টাকা আদায়ের প্রতিবাদ : মানববন্ধনে প্রধান শিক্ষকের অপসারণ দাবি

fec-image

রামুর কচ্ছপিয়া উচ্চবিদ্যালয়ে অ্যাসাইনমেন্টসহ যাবতীয় ফি অতিরিক্ত নেওয়ার প্রতিবাদে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক নুরুল আবছারের অপসারণ ও শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থী এবং অভিবাবকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে।

রবিবার (১৫ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চত্তরে কচ্ছপিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রী ও অভিবাবকদের আয়োজিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে স্কুলের শিক্ষার্থী, অভিভাবকসহ সুশীল সমাজের লোকজন বক্তব্য রাখেন।

এসময় শিক্ষার্থীরা তাদের স্কুলের বিতর্কিত প্রধান শিক্ষক নুরুল আবছারকে অপসারণ করে, শাস্থির আওতায় আনার দাবি জানিয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকে। সাধরণ শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, দেশে করোনাকালীন সময়ে বর্তমান সরকার শিক্ষার্থীদের প্রতি সদয় হয়ে অ্যাসাইনমেন্ট ফি না নিতে কর্তৃপক্ষের প্রতি নির্দেশনা দিলেও তাদের স্কুলে তা মানা হচ্ছে না।

তারা বলেন, কোন শিক্ষার্থী তাদের প্রধান শিক্ষক নুরুল আবছারের দাবিকৃত টাকা দিতে না পারলে, তাকে স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে। তাছাড়া তাদের অ্যাসাইনমেন্টও জমা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থী ও অভিবাবকরা।

এব্যাপারে স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম সিকদার জানান, প্রধান শিক্ষক নুরুল আবছার রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রনয় চাকমার নির্দেশ অমান্য করে, মনগড়াভাবে টাকা উত্তোলন করছে। আর ওই টাকার কোন রকম রশিদও শিক্ষার্থীদের না দিয়ে নিজের মত করে কাজ করছে বলে জানান তিনি।

এই ব্যাপারে অভিযোক্ত প্রধান শিক্ষকের বক্তব্য নিতে তার স্কুলের অফিসে গেলে, তিনি সাংবাদিকদের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরণ করে বলেন, তিনি ইউএনওর অধীনে চলেন না। তাদের শিক্ষা অফিস তাকে টাকা নেওয়ার জন্য বলেছেন বলেও দাবি করেন।

এইদিকে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের খবর পেয়ে দ্রুত ওই স্থানে ছুটে আসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইউএনও প্রনয় চাকমা। তিনি তৎক্ষানিক উপস্থিত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘ আপনারা শান্ত হয়ে স্কুলে ফিরে যান, আমি এই ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে ওই শিক্ষক দোষী হলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে রিপোর্ট দিবো। তাছাড়া যাদের কাছ থেকে টাকা নেওয়া হয়েছে, তাও ফিরিয়ে পাওয়ার আশ্বস্থ করেন প্রনয় চাকমা।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: মানববন্ধন, রামু
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five − 5 =

আরও পড়ুন