নবজাতক ও মায়ের মৃত্যুঝুঁকি এড়াতে স্বাভাবিক প্রসব সেবা নিশ্চিত করতে হবে: এমপি জাফর আলম

চকরিয়া প্রতিনিধি:

চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের আয়োজনে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র ২৪/৭ স্বাভাবিক প্রসব সেবা জোরদারকরণ বিষয়ক অবহিতকরণ কর্মশালা সোমবার (২৯ এপ্রিল) সকালে পৌরসভার এটিএন পার্কের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) কাজী মোস্তফা সারোয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাফর আলম।

চকরিয়া উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বিধান কুমার রুদ্রের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ব্রজ গোপাল ভৌমিক, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতরের পরিচালক (অর্থ) যুগ্ম-সচিব ডা. মো. সারোয়ার বারী, চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী, চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম আতিক উল্লাহ, সুরাজপুর-মানিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম, কোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান দিদারুল হক সিকদার।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নে কর্মরত ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের সকল চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আলহাজ্ব জাফর আলম এমপি বলেছেন, সামাজিক ও পারিবারিক অজ্ঞতা এবং অনিরাপদ প্রসুতি সেবার কারণে প্রতি বছর অনেক মায়ের মৃত্যু ঘটে। পাশাপাশি সুন্দর পৃথিবীতে আগমনের আগে মারা যায় নবজাতক শিশু। তাই সকল ধরণের ঝুঁকি এড়াতে হলে আমাদেরকে সন্তান প্রসব জনিত ঝুঁকির ব্যাপারে সবাইকে সজাগ ভূমিকা পালন করতে হবে। সমাজের সকল স্তরের মানুষের সঙ্গে অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে হবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে বর্তমান সরকার মা ও নবজাতকের মৃত্যু ঝুঁকি এড়াতে নিরাপদ পরিবেশে নারীদের সন্তান প্রসবসহ প্রসুতি সেবাখাতে নানামুখী প্রদক্ষেপ নিয়েছেন। ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র বা সরকারি হাসপাতালের মাধ্যমে এসব সেবা প্রসুতি নারীদের মাঝে পৌঁছে দিচ্ছেন। তাই বিষয়টি নিয়ে কেউ অবহেলা করবেন। রোগীদের সঠিক চিকিৎসা ও পরামর্শ নিশ্চিত করবেন। সরকারি সব ধরণের সেবা ও সাহায্য সুষ্ঠুভাবে বন্টন করবেন। আশা করি সবাইকে সচেতন ও দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের মাধ্যমে আগামীতে প্রসবকালীন সময়ে নবজাতক ও মায়ের মৃত্যুঝুঁকি এড়াতে স্বাভাবিক প্রসব সেবা নিশ্চিত করতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fourteen + 1 =

আরও পড়ুন