ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড থানচিতে, ক্ষতির পরিমাণ ১০ কোটির উপরে

fec-image

বান্দরবান জেলার থানচি উপজেলা বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সরকারি তথ্যমতে ২০৫টি দোকান পুড়ে গেলেও বেসরকারি হিসাবে প্রায় সাড়ে ৩‘শ দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে বলে জানা যায়। যার ক্ষতির পরিমাণ ১০ কোটি টাকার উপরে।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) ভোরে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। তবে আগুন লাগার প্রাথমিক কোন কারন এখনও জানা সম্ভব হয়নি।

স্থানীয়দের মতে, ধারণা করা যেতে পারে কোন দোকানের চুলা থেকে এমন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। একটি দোকান থেকে শুরু হয়ে পরপর অনেকগুলো দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। মানুষ কোন রকম প্রাণ নিয়ে ঘর থেকে বের হলেও সাথে নিতে পারেননি কোন কিছু। তাই অগ্নিকাণ্ডে আনুমানিক ১০ কোটি টাকার ক্ষতি হওয়ার প্রাথামিক ধারণ করা হয়।

তবে থানচি বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপাতি স্বপন বিশ্বাস গণমাধ্যমকে জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রায় ৩০ থেকে ৪০ কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি হতে পারে।

এদিকে পৌনে ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণের জন্য বান্দরবান থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিভানোর চেষ্টা করে। আড়াই ঘণ্টা পর তারা স্থানীয়দের সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হোন। ততক্ষণে প্রায় ৪ বসত বাড়িসহ ৩ শতাধিক দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ঘটনার পর থানচি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থোয়াইহ্লামং মারমা, থানচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল হক মৃদুল, লে. কর্নেল সানবির হাসান মজুমদার, ১৬ ইসিবি মেজর মো. কিবরিয়াসহ অনেকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে, স্বাধীনতা পরবর্তী ৪ বার এমন ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হয়। প্রথমবার ১৯৮৪ সাল, ২য় বার ১২ জুন ১৯৯৮, তৃতীয় বার ৬ অক্টোবর ২০০৬, চতুর্থ বার ২৭ শে এপ্রিল ২০২০। প্রথম বার ৫০ দোকান, ২য় বার ১২০ দোকান, তৃতীয় বার ২শত দোকান আর এবারে সাড়ে তিনশত দোকান পুড়ে ছাই। যার ক্ষয় ক্ষতি পরিমান ১০ কোটির উপরে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: অগ্নিকাণ্ড, থানচি, ফায়ার সার্ভিস
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 2 =

আরও পড়ুন